Home / সারাদেশ / অন্যরকম এক মিলন মেলায় হাজির পাড়া স্কুলের ছাএ ছাএীরা

অন্যরকম এক মিলন মেলায় হাজির পাড়া স্কুলের ছাএ ছাএীরা

ক্রাইম প্রতিদিন, মোঃ ইসমত দ্দোহা, ঢাকা : বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে দিয়ে দ্বিতীয় বারের মতো আয়োজিত হলো “হাজির পাড়া হামিদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাএ -ছাএী ফোরাম, ঢাকা, কর্তৃক মিলন মেলা ও আনন্দ উৎসব -2018, লক্ষ্ণীপুর জেলার হাজির পাড়ায় অবস্হিত ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়ের ছাএ -ছাএীরা গ্রাম, শহর, দেশ, বিদেশে সবখানে সব ক্ষেত্রেই তাদের শক্ত অবস্থান তৈরী করেছেন। এই বিদ্যালয়ের ছাএ -ছাএীরা ডাক্তার, ইন্জিনিয়ার, সরকারি আমলা, রাজনীতিবিদও হয়েছেন জাতীয় পর্যায়ে। আবার বিদ্যালয়ের অনেক ছাএ -ছাএী মেধা ও প্রতিভা থাকার পরও পরিবারের আর্থিক টানাপোড়েন ও প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে মাধ্যমিক পর্যায়েই ইতি টানছেন শিক্ষা জীবনের। অন্যদিকে অনাকাঙ্ক্ষিত রাজনৈতিক প্রভাবের কারনেও বিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে। আর এজন্যই প্রাক্তন ছাএ -ছাএী ফোরাম সাংগঠনিক ভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিদ্যালয়ের উন্নয়ন ও সার্বিক সহযোগিতা করার।

ক্রাইম প্রতিদিনের সাথে আলাপকালে দাতা পরিবারের অন্যতম সদস্য মোঃমোরছালিন মাসরু বলেন, আমাদের পূর্বপুরুষরা সমাজ ও দেশের স্বার্থে যে ত্যাগ স্বীকার করে গেছেন, বর্তমান প্রজন্মের অনেকেই হয়তো তা জানেনা। পাশাপাশি বিদ্যালয়টি এখন আর আমাদের একা না, এটা সমাজ ও রাস্ট্রের সম্পওি হয়ে গেছে। এখন এ বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়ন ও এলাকার স্বার্থে আমাদের এ ফোরাম গঠন করা। তরুণ প্রজন্মের অনেকেই আমাদের চিনেনা, আমরাও চিনিনা, তাদের সাথে আমাদের পরিচিত হওয়া দরকার আছে। অসচ্ছল কিন্তু মেধাবী পরিবারের ছাএদের আর্থিক সুরক্ষ দেওয়া, মাদক ও নোংরা রাজনীতি থেকে তরুণদের দূরে রাখা, সকলের প্রতি সকলের ভ্রাতৃত্ববোধ ও শ্রদ্ধাবোধ তৈরী করার উদ্দেশ্য নিয়েই কাজ করে যাচ্ছে ফোরামের সদস্যরা। তিনি আরও বলেন দ্বিতীয় বারের মতো আয়োজন হলো মিলন মেলার, আমরা আগামীতে নিজ জেলার কাছাকাছি কোথাও অনুষ্ঠান করার চিন্তা -ভাবনা করছি, যাতে করে আরও বেশি ছাএ -ছএীদের অংশ গ্রহণ নিশ্চিত করা যায়।

দাতা পরিবারের আরেক সদস্য মোঃআবির হোসেন বলেন, একটি সামাজিক ও অরাজনৈতিক সংগঠন হিসেবেই সবার অংশ গ্রহণ কাম্য বিদ্যালয়ের স্বার্থে। প্রাক্তন ছাএ -ছাএী ফোরাম বিদ্যালয়ের অতীত ইতিহাস, ঐতিহ্য তরুণ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার পাশাপাশি অসচ্ছল ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা করার জন্য ফান্ড গঠনের প্রক্রিয়া অব্যাহত আছে।

বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাএ তরুণ রাজনীতিবিদ, বাংলাদেশ যুবলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলা পরিষদ সদস্য মোঃবদরুল আলম শ্যাওল, ক্রাইম প্রতিদিনকে বলেন, বিদ্যলয়টি আমাদের। এর সার্বিক অবকাঠামোগত উন্নয়ন, শিক্ষার মানোন্নয়, শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখা, মেধাবী ও অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করা, খেলাধূলা ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের মাধ্যমে তরুণ প্রজন্মকে হিংসাত্মক রাজনীতি ও মাদক থেকে দূরে সুন্দর প্রজন্ম গড়াই আমাদের এ ফোরামের উদ্দেশ্য। আগামীতে আরও বড় পরিসরে মিলন মেলা আয়োজনের চিন্তা -ভাবনা আছে আমাদের।

ফোরামের অন্যতম উদ্যোক্তা মোঃজামাল হোসেন সাগর, ক্রাইম প্রতিদিনের সাথে আালাপকালে বলেন, দ্বিতীয় বারের মতো আয়োজন করে আমরা ফোরামের সক্ষমতা অনুধাবন করতে পারলাম। আশা করি আমরা আগামীতে আরও বেশি পরিমাণ ছাএ -ছাএী যাতে অংশ করতে পারে সে প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। পাশাপাশি আমাদের মূল উদ্দেশ্য যে গরীব, মেধাবী, অসচ্ছল শিকার্থীদের আর্থিক সহযোগিতা করার মাধ্যমে তাদের শিক্ষা জীবন অব্যাহত রাখা, সে উদ্দেশ্য প্রয়োজনীয় ফান্ড সংগ্রহের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

সকাল সাতটায় শাহবাগ জাদুঘর হতে যাএা শুরু করে, বিআইডব্লিউটিএ, ইকো পার্ক, নারায়ণগঞ্জে পৌঁছে দিন ব্যাপি নাচ গান, খেলাধুলা ও সংস্কৃতির মাধ্যমে সত্যিই এক অপূর্ব মিলন মেলা ও উৎসব আমেজে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের পরিচয় ঘটে। সন্ধ্যা ছয়টায় অনুষ্ঠান শেষ হয়।

অনুষ্ঠান আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন ফোরামের অন্যতম উদ্যোক্তা, মহিউদ্দিন কচি, মোঃআবির হোসেন, মোঃজামাল হোসেন সাগর, মশিউর রহমান মুন্না, কামাল উদ্দিন, ও আবদুর রহিম।

তবে দলীয় ও সরকারি অনুষ্ঠানে ব্যস্ত থাকায় প্রধান অতিথি দাতা পরিবারের সিনিয়র সদস্য জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম ফারুক পিংকু স্কুলের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেনি, তবে মোবাইলে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে