Home / খেলাধুলা / আর্জেন্টিনার কথা মোটেও ভাবছে না ক্রোয়েশিয়া

আর্জেন্টিনার কথা মোটেও ভাবছে না ক্রোয়েশিয়া

ক্রাইম প্রতিদিন : ১৯৯৮ বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে উঠে ফুটবল বিশ্বকে চমকে দিয়েছিল ক্রোয়েশিয়া। দীর্ঘদিন পর এবার রাশিয়া বিশ্বকাপে দুর্দান্ত শুরু করেছে ক্রোয়াটরা। ‘ডি’ গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচে নাইজেরিয়া ও আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দাপটের সঙ্গে পা রেখেছে দ্বিতীয় রাউন্ডে।

আজ বাংলাদেশ সময় রাত ১২টায় গ্রুপের শেষ ম্যাচে রোস্তভ-অন-ডনে ক্রোয়েশিয়ার প্রতিপক্ষ আইসল্যান্ড। আইসল্যান্ডকে হারিয়ে এক ঢিলে দুই পাখি মারতে চান মডরিচরা। বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো টানা তিন জয়ের হাতছানি তাদের সামনে।

এর আগে ’৯৮ বিশ্বকাপে টানা দুই জয়ের রেকর্ডটা দীর্ঘদিন পর ক্রোয়েশিয়া ছুঁয়েছে আর্জেন্টাইনদের ৩-০ গোলে উড়িয়ে দেয়া ম্যাচে। এছাড়া আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ড্র করলে বা জয় পেলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরের রাউন্ডে যাবে ক্রোয়েশিয়া। এটিও একটি রেকর্ড। এর আগে বিশ্বকাপে কখনই গ্রুপসেরা হতে পারেনি ক্রোয়াটরা।

বিশ্বকাপে নিজেদের টিকে থাকার স্বার্থে আর্জেন্টিনার চাওয়া, সেরা দলটি খেলিয়ে আইসল্যান্ডকে যেন জিততে না দেয় ক্রোয়েশিয়া। তবে ক্রোয়েশিয়ার তেমন ভাবনা নেই।

ক্রোয়াট ডিফেন্ডার দেয়ান লভরেন জানিয়েছেন, আর্জেন্টিনার কিসে সুবিধা হয় সেটি নিয়ে নয় বরং নিজেদের স্বার্থের কথা ভাবছে তার দল, ‘আর্জেন্টিনার উদ্বেগ আমি পুরোপুরি বুঝি এবং তাদের আশা পরের ম্যাচেও ক্রোয়েশিয়া সেরা দল নিয়ে খেলতে নামবে। কিন্তু আমাদের অবশ্যই ভাবতে হবে যে, আমাদের যে সতীর্থরা হলুদ কার্ড দেখেছে, তাদের খেলানো উচিত হবে কিনা। অবশ্য কোচই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। আমরা সবাই খেলার জন্য প্রস্তুত আছি।’

আইসল্যান্ডকেও সমীহ করেছেন লভরেন। বলেন, ‘অবশ্যই আমাদের লক্ষ্য পুরো নয় পয়েন্ট পাওয়া। তবে আমরা মনে করি না, আইসল্যান্ডের বিপক্ষে জেতা সহজ হবে। আমরা অতীতে তাদের সঙ্গে খেলেছি এবং জানি তারা এমন দল, যাদের সমীহ করা উচিত।’

দলের ছয় খেলোয়াড়ের নামের পাশে একটি করে হলুদ কার্ড থাকা চিন্তা বাড়িয়েছে ক্রোয়েশিয়ার কোচ লাতকো দালিচের। আরেকটি হলুদ কার্ড দেখলে নকআউট পর্বে এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা ভোগ করতে হবে তাদের। আজ তাই দ্বিতীয় সারির দল নামাতে পারেন দালিচ। ইভান রাকিতিচ, আন্তে রেবিচ, শিমে ভারসালকো, মারিও মানজুকিচ, মার্সেলো ব্রোজোভিচ ও ভেদরান চরলুকা- ক্রোয়েশিয়ার এই ছয়জন পড়েছেন হলুদ কার্ডের খাঁড়ায়।

শেষ ষোলোর লড়াইয়ে টিকে থাকতে কঠিন সমীকরণের মুখোমুখি আইসল্যান্ড। শুধু ক্রোয়েশিয়াকে হারালেই হবে না, দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ম্যাচের ফলের দিকেও তাকিয়ে থাকতে হবে আইসল্যান্ডকে। দৃশ্যত অসম্ভব মনে হলেও সব বাধা উতরে ২০১০ সালে স্লোভাকিয়ার পর প্রথম নবাগত হিসেবে বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে খেলার স্বপ্ন দেখছে আইসল্যান্ড।

Print Friendly, PDF & Email

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 7
    Shares