Home / সারাদেশ / নড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস পালিত

নড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদায় স্বাধীনতা দিবস পালিত

ক্রাইম প্রতিদিন, নড়াইল : নড়াইলে যথাযোগ্য মর্যাদার মধ্যদিয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস পালিত হচ্ছে। সোমবার জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে ৩১ বার তোপধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়।

এরপর শিল্পকলা একাডেমী চত্ত্বরে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভে, আদালত সংলগ্ন বধ্যভূমি ও রূপগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড অফিস প্রাঙ্গণে গণকবর ও মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, জেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জেলা আওয়ামী লীগ, নড়াইল পৌরসভাসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

সকাল ৮টায় বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্টেডিয়ামে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, একযোগে সারাদেশের সাথে জাতীয় সংগীত পরিবেশন, কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে এবং মুক্তিযোদ্ধাদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় জেলা পর্যায়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ পুলিশ বিভাগ, আনসার বাহিনী, দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটিসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেন।

এসব অনুষ্ঠানে নড়াইলের জেলা প্রশাসক মো. এমদাদুল হক চৌধুরী, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোসসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক গাউসুল আজম মাসুমের নেতৃত্বে বেলা ১১টায় রূপগঞ্জ বাসস্টান্ড চত্বর থেকে একটি মিছিল বের হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে শেষ হয়। পরে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত আলোচনা সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলুসহ আওয়ামী লীগ, যুবলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে লোহাগড়া উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্থানীয় মোল্লার মাঠে শহদী বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মনিরাপ পারভীন, সহকারী কমিশনার এমএম আরাফাত হোসেনসহ সরকারী দপ্তরের কর্মকর্তা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা।

Print Friendly, PDF & Email

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 51
    Shares