Home / লিড নিউজ / পঞ্চগড়ে নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

পঞ্চগড়ে নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

ক্রাইম প্রতিদিন, সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড় : পঞ্চগড়ে দপ্তরী নিয়োগে অনিয়ম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা। পঞ্চগড়ে আটোয়ারী উপজেলায় গত ১লা জুলাই ১৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয় দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদে চুড়ান্ত ভাবে প্রার্থী নির্বাচিত করে নিয়োগ কমিটি। এ নিয়ে নিয়োগ কমিটির বিরুদ্ধে অনেকেই নিয়োগ বানিজ্যের অভিযোগ তুলেছে। আটোয়ারী উপজেলার দাড়খোর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদে মুক্তিযোদ্ধা কোটা লংঘন করায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সলিম উদ্দীন এর পুত্র সাহিবুল ইসলাম বাদী হয়ে নিয়োগ কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আটোয়ারী, শারমিন সুলতানা সহ ৫ জনের নামে বিজ্ঞ আটোয়ারী সহকারী জজ আদালত, পঞ্চগড় এ মামলা দায়ের করেছে, যাহার নং ১৫/১৮।

আদালত সূত্রে জানা যায়, যথারীতি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ও পৌষ্যদের ক্ষেত্রে বয়স সীমা ৩২ বছর পর্যন্ত নেওয়া শর্ত থাকে। মুক্তিযোদ্ধা পৌষ্য হিসেবে দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী পদে আবেদন করে সাহিবুল ইসলাম। ঐ পদে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় আর কোন আবেদন নেই। নিয়োগ কমিটি যাচাই বাছাই করে ২৫শে মে মৌখিক পরীক্ষার জন্য দিন ধার্য করে। ঐ দিনেই সাহিবুল ইসলাম প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহ পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে। মামলার বাদী একমাত্র মুক্তিযোদ্ধা পৌষ্য ও আনছার ভি.ডি.পি কর্র্তৃক প্রশিক্ষন প্রাপ্ত হলেও ঐ বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশ্য প্রহরী হিসেবে চুরান্ত ভাবে নির্বাচিত না করে, সরকারী নিয়োগে মুক্তিযোদ্ধা পৌষ্য ও আনছার ভি.ডি.পি কোটা পদ্ধতির বিধান ভঙ্গ করে, মকবুল হোসেন এর পুত্র সাদেকুল ইসলামকে চুড়ান্ত ভাবে নির্বাচিত করে।

আরো খবর, দপ্তরী নিয়োগে দাড়খোর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে উৎকোচ চাওয়ার অভিযোগ করেছে। পরীক্ষায় অংশ গ্রহনকারী জানায় প্রধান শিক্ষক আমার কাছে ২ লক্ষ টাকা উৎকোচ দাবী করে। কিন্তু আমি উৎকোচ দিতে রাজি না হলে সাদেকুল ইসলামকে চুড়ান্ত ভাবে নির্বাচিত করে।

এ ব্যাপারে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সাহাব উদ্দীন এর সাথে মুঠফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ব্যস্ততা দেখান।

আটোয়ারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আব্দুল লতিফ জানান আমাদের প্রজ্ঞাপনে কোন কোটার কথা উল্লেখ নেই।

আটোয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা জানান, কোটা পদ্ধতি আমাদের নীতিমালায় নেই এবং কে কার কাছে টাকা চেয়েছে আমি জানিনা।

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে