শিরোনাম

প্যানেল মেয়রকে হাতুড়িপেটা : গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ক্রাইম প্রতিদিন, এস,এম স্বাধীন, শরীয়তপুর : শরীয়তপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র ২ আলমগীর হোসেন মৃধাকে গতশুক্রবার ১৩এপ্রিল হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত কওে সন্ত্রসীরা। এ ঘটনায় জড়িত শাহজালাল বেপারী, সাদ্দাম শেখ ও শাহজালাল মাদবরের নামে আলমগীর হোসেন মৃধার স্ত্রী বাদী হয়ে পালং মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। হামলার ৩দিন অতিবাহিত হওয়ার পরেও পুলিশ আসামীদের গ্রেপতার করতে না পারায়, দ্রুত আসমীদের গ্রেপতার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপার বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন শরীয়তপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের এলাকাবাসী ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বৃন্দ। এসময় উপস্থিত ছিলেন শরীয়তপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রাজ্জাক, ৩নং ওয়াড কাউন্সিলর সিদ্দিকুর রহমান, ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও প্যানেল মেয়র বাচ্চু বেপারী, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল কাশেম মোল্লা, ৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রশিদ সরদার,৪-৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর রোকেয়া বেগম, আবুছালে মোঃ ফয়েজ,বিল্লাল খান, পিন্টু মুন্সী, ইদ্রিস মুন্সী,সদও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম কোতোয়াল, জামাল বেপারী, মিল্টন সরদার,মামুন মৃধা, পরশ খান, সাঈদ মৃধা প্রমুখ।

উল্লেখ্য শুক্রবার সকাল ৬টার দিকে কাউন্সিলর আলমগীর মৃধা হাটতে বের হয়ে কাগদী দক্ষিন পাড়া জাকির মাদবরের দোকানে গেলে পুর্বশত্রুতার জের ধরে শাহজালাল বেপারী,শাহজালাল মাদবর ও সাদ্দাম শেখ তার উপর হামলা করে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা আহত কাউন্সিলর আলমগীর মৃধাকে উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরন করে। আলমগীর মৃধার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরন করেন। এ ব্যাপারে পালং মডেল থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান বলেন, ৩জনকে আসামী কওে একটি মামলা মামলা দায়ের করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। আসাকরী খুবদ্রুত আসামীদেও গ্রেপতার করতে সক্ষম হবো।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 61
    Shares
x

Check Also

ক্ষমতায় গেলে অবশ্যই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করব : ফখরুল

ক্রাইম প্রতিদিন, ঢাকা : ক্ষমতায় গেলে অবশ্যই ডিজিটাল ...