Home / জাতীয় / বিশেষ প্রতিবেদন / প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা সফরে তিন অর্জন দেখছে আ’লীগ

প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা সফরে তিন অর্জন দেখছে আ’লীগ

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুই দিনের কলকাতা সফরে তিনটি বড় অর্জন এসেছে মনে করে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। দলটির মতে, প্রথমত, এই সফরের মধ্য দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের সঙ্গে পুরনো সম্পর্ক নতুন করে ঝালাই হলো, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের স্মৃতিবিজড়িত শান্তিনিকেতনে ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে কবিগুরু যে আমাদেরও, তা প্রমাণ হয়েছে এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যয়ের সঙ্গে বৈঠকে বিশেষ দুই ইস্যু রোহিঙ্গা সংকট ও তিস্তার পানির হিস্যা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি এসব বিষয়ে চাপ দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কলকাতা সফরের মধ্য দিয়ে এই তিন অর্জন বাংলাদেশের ঝুঁড়িতে এসেছে। আর এগুলো দেশের মানুষের মর্যাদা বহুগুণে বাড়িয়ে দিয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ডি লিট (ডক্টর অব লিটারেচার) দেওয়ায় বাংলাদেশের মানুষকে মর্যাদার আসনে বসানো হয়েছে। এসব দিক বিবেচনায় নিয়ে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী মহল প্রধানমন্ত্রীর কলকাতা সফরকে সফল আখ্যায়িত করেছেন।

আওয়ামী লীগের নেতারা জানান, ভারত সরকার আমাদের সরকারপ্রধানকে যে মর্যাদা দেখিয়েছেন, তা বাংলাদেশকে বিশ্বসভায় রাজনৈতিকভাবে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছে। পাশাপাশি প্রতিবেশী ও বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক আরও গভীর হলো। দিন যত যাচ্ছে এই সম্পর্ক আর গাঢ় ও গভীর হচ্ছে।

ক্ষমতাসীন দলের নীতিনির্ধারকরা মনে করেন, তিস্তার পানির হিস্যা নিয়ে আলোচনা প্রকাশ্যে না এলেও এই সফরের আলোচনায় তা ছিল। এবং এর অগ্রগতিও হয়েছে মনে করেন আওয়ামী লীগের নেতারা।

এদিকে এ সপ্তাহে কলকাতা সফরের অর্জন নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, “প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফর ‘ইট ইজ অল সাকসেস’।” তিনি বলেন, ‘বিএনপি আজকে বলে তিস্তার পানির কী হলো? তারা কী ভুলে গেছে, তাদের দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দিল্লি সফর শেষে দেশে ফিরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব বলেছিলেন, পানির হিস্যার কথা বলতে তিনি ভুলেই গিয়েছেন। ওদের মুখে এসব কথা শোভা পায় না।”

মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে গঙ্গার পানি আদায় করেছেন, সিটমহল নিয়ে যুদ্ধ ঘোষণা হয়ে যায়— সেই সিটমহল সমস্যার সমাধান করেছেন, সমুদ্রসীমার সমাধান করেছেন।’ তিনি বলেন, ‘তিস্তার পানির হিস্যাও আদায় করা হবে। শেখ হাসিনা সমস্যার সমাধান করতে পারবেন।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘যেকোনও সমস্যা আলাপ-আলোচনার মধ্যামে সমাধান করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তিস্তা নিয়ে কোনও কথা না বললেও পত্রপত্রিকায় লেখা স্পেকুলেশনে দেখা যায়, তিস্তার পানির হিস্যা নিয়ে ভারত আগের মতো কঠোর অবস্থানে নেই।’ তিস্তার সমস্যা একসময় না একসময় সমাধান হবেই বলেও মন্তব্য করেন মতিয়া চৌধুরী।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য ফারুক খান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পশ্চিমবঙ্গ সফরের মধ্য দিয়ে বড় তিনটি অর্জন এসেছে বাংলাদেশের।’

উল্লিখিত অর্জনগুলো তুলে ধরে এই সফরকে সফল বলে দাবি করে ফারুক খান বলেন, “প্রধানমন্ত্রী কিছু সমস্যা বাকি রয়েছে জানিয়ে বলেন, ‘সেই কথা বলে চমৎকার অনুষ্ঠান নষ্ট করতে চাই না। আশা করি, যেকোনও সমস্যা বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে সমাধান করতে পারবো।’ এই কথা বলে হাজার কথা বলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। ভারতকে হিসাব বুঝিয়ে দেওয়ার চাপ তৈরি করেছেন।” বিএনপি কূটনীতি বুঝে না মন্তব্য করে ক্ষমতাসীন দলের এই নেতা বলেন, ‘কূটনীতিতে ধৈর্য ধরতে হয়।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর পশ্চিমবঙ্গ সফর নিঃসন্দেহে ভালো সফর। প্রতিটি মানুষ চায় মূল্যায়ন। সেই মূল্যায়ন ভারত সরকার আমাদের সরকারপ্রধানকে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীকে ডি লিট প্রদান করে বাংলাদেশের জনগণকে সম্মান দেখিয়েছেন।’ তিনি বলেন, ‘ভারতের এই সম্মান বাংলাদেশকে রাজনৈতিভাবে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছে। মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে যত দিন যাচ্ছে, সম্পর্ক গাঢ় ও গভীর হচ্ছে, ভবিষ্যতে এই সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে সক্ষম হবো আমরা।’

আওয়ামী লীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কলকাতা সফর সামগ্রিকভাবে একটি সফল সফর। এই সফর বাংলাদেশের জন্য অর্জন এবং বহুগুণে সম্মান বয়ে নিয়ে এসেছে।’

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 22
    Shares
x

Check Also

দণ্ডিত খালেদার মুক্তি আন্দোলনে হবে না : হানিফ

ক্রাইম প্রতিদিন : দুর্নীতির মামলায় দণ্ডিত আসামিকে আন্দোলন ...