Home / সারাদেশ / ভুল চিকিৎসায় প্রাণ হারালো গৃহবধূ রোকসানা

ভুল চিকিৎসায় প্রাণ হারালো গৃহবধূ রোকসানা

ক্রাইম প্রতিদিন,সালাহ উদ্দিন সুমন,নোয়াখালী: গৃহবধূ রোকসানা আক্তার (২২)। নোয়াখালী সদর উপজেলার পূর্ব চর উরিয়া গ্রামের দিন মজুুর বাবুল মিয়ার মেয়ে ও পূর্ব এওজবালিয়া গ্রামের দরিদ্র রুবেলের স্ত্রী রোকসানা। সাউথ বাংলা হসপিটাল লিমিটেডের ভুল চিকিৎসায় প্রাণ হারাতে হয়েছে তাকে।

রোকসানার পিতা বাবুল মিয়া ও স্বজনরা জানায়, চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দেয় সে। সন্তান প্রস্রবের একমাস পর গত ২০ মার্চ ডাক্তার দেখানোর জন্য রোকসানাকে জেলা শহরের সাউথ বাংলা হসপিটাল লিমিটেডে নেয়া হলে শাহ্ এফতার জাহান নামের এক ডাক্তার তাকে ওই হসপিটালে ভর্তি করে ডিএনসি করানোর নির্দেশ দেয়।

পরে রোকসানার অভিভাবকরা তাকে ওই হসপিটালের ২০১ নং কেবিনে ভর্তি করে ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে ডিএনসি করানোর জন্য হসপিটাল কর্তৃপক্ষের সাথে চুক্তি করে। চুক্তির পর অর্ধেক টাকা বুঝে নিয়ে কোন ডাক্তার ছাড়াই হসপিটালের স্টাফ হৃদয়কে দিয়ে রোকসানার ডিএনসি করানো হয়। এতে রোকসানার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে জীবন ঝুকিতে পড়লে হসপিটাল কর্তৃপক্ষ একটি এ্যাম্বুলেন্স যোগে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।

জেনারেল হাসপাতালে ভর্তির দুই দিন পর রোকসানার জীবন ঝুকি বেড়ে যাওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে ভর্তির তিন দিন পর ২৯ মার্চ সকালে মারা যায় রোকসানা।

দুই বছর পূর্বে পার্শবর্তী এওজবালিয়া ইউনিয়নের দরিদ্র রুবেলের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয় রোকসানা। তার দুইটি শিশু সন্তান রয়েছে। মাত্র একটি ভুল! ডাক্তারের পরিবর্তে স্টাফ দিয়ে করানো হয়েছে ডিএনসি। এতেই জড়ে গেল এ তাজা প্রাণ।

রোকসানার স্বজনরা জানান, রোকসানার মৃত্যুর সাথে জড়িত সাউথ বাংলা হসপিটাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ভয়ে মুখ খুলতে পারছেন না তার নিরীহ পিতা ও স্বামী। কারণ রোকসানার মৃত্যুর পর নানাভাবে হুমকি আসছে রোকসানার পরিবারের উপর।

এ বিষয়ে সাউথ বাংলা হসপিটালে ফোন করলে ফোন রিচিভ না করায় তাদের বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে