Home / বাংলাদেশ / সারাদেশ / রাজধানী / মরা মুরগীতে সয়লাব নিউ মার্কেট!

মরা মুরগীতে সয়লাব নিউ মার্কেট!

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : মরা মুরগি বিক্রি করলে লাইসেন্স বাতিল, এই মর্মে কড়া নির্দেশিকা পৌরসভার। কিন্তু, মানছে কে? নিউমার্কেট জুড়ে চলছে মরা মুরগির রমরমা কারবার।

নিউমার্কেট বাঙালির ঐতিহ্য। ভোরের আলো ফুটতেই এই মার্কেটে ঢোকে একের পর এক মুরগি বোঝাই ট্রাক। অল্প জায়গায় ঠাসাঠাসি করে আনা ক্রেটেই মারা যায় বেশকিছু মুরগি। আর পচামাংসের কারবারিদের নেটওয়ার্ক শুরু হয় ঠিক এখান থেকেই।

জানা যায়, যে মুরগিগুলি মরে যাচ্ছে তাদের রেখে দেওয়া হচ্ছে ক্রেটের তলায়। এরপর লুকিয়ে রাখা মুরগি চোরাগোপ্তা ঢুকিয়ে ফেলা হয় বস্তায়। তারপর আসল অপারেশন শুরু হয়। সুযোগ বুঝে মরা মুরগি সরিয়ে ফেলতে মাঠে নেমে পড়েন এক শ্রেণির দালাল। দিনের পর দিন ভারতের নিউমার্কেটে চলছে এই অসাধু ব্যাবসা।

কোথাও আবার জ্যান্ত মুরগির আড়ালে চলছে মরা মুরগি পাচার। দালাল-ফড়েদের হাত ঘুরে এভাবেই মরা মুরগি পৌছে যাচ্ছে কলকাতার নামী দামি হোটেলে। আর তারপর বিরিয়ানি, রোল, চাপ নানা স্বাদে-নানা রূপে পৌঁছে যাচ্ছে ক্রেতাদের প্লেটে। পুর নজরদারি অভাবে কাবরারি চলছে রমরমিয়ে।

আপাতত মরা মুরগি ভ্যাটে ফেলা হলেও, প্রশ্ন উঠতেই থাকছে। ভাগাড়ের মাংস ব্যবসার কিং পিন বিশুকে জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, পচামাংসের ৪০ শতাংশ কারবার চলে নিউমার্কেটে। তারপরও কেন এখানেই নজরদারি এত ঢিলেঢালা?

কলকাতা রাজ্যজুড়ে শোরগোলের মধ্যেও কী করে নির্বিকারে নিউমার্কেটের মতো শহরের কেন্দ্রস্থলে চলছে মরা মুরগির কারবার? পুর নজরদারি আরও একটু কড়া হোক, আরেকটু তত্‍পর হোক পুলিশও। ভাগাড়ের মাংস প্লেটে পড়ার আতঙ্কয় ভোগা আম বাঙালির প্রার্থনা এখন এটুকুই। সূত্র: জি নিউজ বাংলা।

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 23
    Shares
x

Check Also

লাইসেন্স না থাকায় ১০৪০ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ক্রাইম প্রতিদিন ...