Home / বাংলাদেশ / সারাদেশ / মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে খেলাধুলার বিকল্প নেই

মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে খেলাধুলার বিকল্প নেই

ক্রাইম প্রতিদিন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ : চাঁপাইনবাবগঞ্জসহ সারাদেশে প্রকৃতির মাঝে বইতে শুরু করেছে শীতের হিমেল হাওয়া। কনকনে ঠান্ডা আর ঘন কুয়াশার আবির্ভাব যেন জানান দিচ্ছে শীত এসেছে। আর শীতকালের অন্যতম বড় একটি অংশ হচ্ছে ব্যাডমিন্টন খেলা।

শীত আসলেই শহর কিংবা গ্রামের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, খেলার মাঠ, পাড়া-মহোল্লা বা বাজারের খোলা জায়গাসহ প্রতিটি অলিতে গলিতে ব্যাডমিন্টন খেলার ধুম পড়ে। সন্ধ্যা থেকে রাত অবধি খেলায় অংশ নেন তরুণ সহ নানা বয়সীন মানুষ। তবে বর্তমানে তালিকা থেকে বাদ পড়েননা মেয়েরাও। তারাও শীতের পরশ বুলানো কুয়াশায় মত্ত থাকেন ব্যাডমিন্টন খেলায়।

আগামী ও বর্তমান সমাজের অন্যতম সম্পদ হচ্ছে এদেশের তরুণ প্রজন্ম। আর তরুণ প্রজন্মের উপর ভয়াবহ ছোবল পড়েছে বিষাক্ত মাদকের। ধ্বংস হতে বসেছে আগামীর পৃথিবীকে নেতৃত্বদানকারী যুব সমাজ। আর মাদক থেকে যুব সমাজকে দুরে সরিয়ে রাখতে খেলাধুলার বিকল্প নেই বললে চলে।

তাই ভয়ানক মাদকের ছোবল থেকে তরুণ প্রজন্মকে বাঁচিয়ে রাখতে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুরে খেলায় মনোযোগী হতে উদ্বুদ্ধ করছেন সুশীল সমাজের এক শ্রেণীর মানুষ।

এরই ধারাবাহিকতায় বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে সন্ধ্যা থেকে রাতভর ‘ইয়াং স্টার ব্যাডমিন্টন ক্লাব’ এ স্থানীয় তরুণ ও যুবকদের নিয়ে খেলা হচ্ছে ব্যাডমিন্টন। এতে যুব সমাজকে মাদকসহ অন্যান্য খারাপ কাজ থেকে সরিয়ে রাখতে
গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে ক্লাবটি। শুধু মাদক নয় শরীর চর্চার ক্ষেত্রেও ব্যাপক অবদান খেলাটির।

রবিবার সন্ধ্যায় বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে চোখে পড়ে ব্যাডমিন্টনের ব্যাট হাতে বেশ কিছু যুবকসহ লাইট, নেট, কর্ক ও স্ট্যান্ডের সাজানো মাঠ।

সারাদিনের কর্মব্যস্ততায় কাটানো সময় পার করে সন্ধ্যা হলেই ট্রাউজার আর ট্রাকসুট পরে ব্যাডমিন্টন খেলায় অংশগ্রহণ করেন তরুণসহ মধ্য বয়সী নানান শ্রেণীপেশার মানুষ।

এদিকে খেলায় অংশগ্রহণকারী আদিনা ফজলুল হক সরকারি কলেজের ইতিহাস বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহা. জিয়াউল হক বিনোদপুর ইউনিয়ন ও খাসেরহাট বাজারটি সীমান্তবর্তী এলাকার কেন্দ্রস্থল। সীমান্তবর্তী এলাকার যুবকসহ সাধারণ মানুষগুলো সচারচর মাদকসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত হয়ে যায়।

তাই যুব সমাজকে মাদকের ছোবল ও খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখতে আমরা এই খেলাটির আয়োজন করেছি। কারণ তরুণ প্রজন্মকে মাদকসহ খারাপ পথ থেকে বাঁচিয়ে রাখতে খেলাধুলার বিকল্প নাই। তাই আমরা তরুণ সহ মধ্য বয়সী সকলকে খেলায় অংশগ্রহণ করার জন্য উদ্বুদ্ধ করে আসছি। আগামী ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত আমরা নিয়মিত খেলাটি চালিয়ে যাবো।

ব্যাডমিন্টনের কোর্ট সমতল আয়তাকৃতির হয়ে থাকে। আন্তর্জাতিক ভাবে র‌্যাকেটের দৈর্ঘ্য প্রস্থ ২০/৪৪ হয়। কর্কের ক্ষেত্রে এর ওজন সচারচর ৫৫০ হয়ে থাকে। এর মধ্যে ১৪ থেকে ৬৪টি পালক থাকে। একক ও দ্বৈত উভয় খেলায় সাধারণত ১৫ থেকে ২১ পয়েন্টে গেম হয়। উভয় দল ২০-২০ পয়েন্ট অর্জন করলে সেক্ষেত্রে ২ পয়েন্ট বেশি পেয়ে জয়লাভ করতে হবে। অর্থাৎ ২০-২২, ২৪-২৮ ইত্যাদি। উভয় দলের পয়েন্ট সমান হওয়াকে ডিউস বলা হয়। এভাবে ৩০ পয়েন্টের মধ্যে খেলা শেষ করতে হয়।

নিয়মিত খেলায় যারা অংশগ্রহণ করে থাকেন তাদের মধ্যে- শিবগঞ্জ ডিগ্রী কলেজের ফিন্যান্স বিভাগের প্রভাষক মোহা. আল মুরশেদ, জনতা ব্যাংকের চাতরা শাখার সিনিয়র অফিসার মো. ইব্রাহীম আলী, বিনোদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. আব্দুস শরিফ, ব্যবসায়ী মো. জাকির হোসেন, লিপ্টন, সাউন, মিলন, নাজিম সহ অনেকে।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 1
    Share
x

Check Also

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হতে চান ভারতীয় নারী

ক্রাইম প্রতিদিন, ওয়াশিংটন : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ...