Home / খেলাধুলা / শিরোপা জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২২২ রান

শিরোপা জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ২২২ রান

ক্রাইম প্রতিদিন, ঢাকা :  চতুর্থ ফাইনাল, প্রথমবারের মত শিরোপা জয়ের হাতছানি। একটি ট্রফির আক্ষেপ এতদিন বাংলাদেশের ক্রিকেটে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। ২০০৯ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে জিততে জিততে হেরেছে শ্রীলঙ্কার কাছে। ২০১২ সালে এশিয়া কাপের ফাইনালে মাত্র ২ রানের আক্ষেপ, ২০১৬ এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টির ফাইনালে উঠেও ভারতের কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত থাকতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

এবার সেই আক্ষেপ ঘোচানোর মিশনে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২২২ রান। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে সবকটি উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা সংগ্রহ করে ২২১ রান।

চতুর্থ ফাইনাল, প্রথমবারের মত শিরোপা জয়ের হাতছানি। একটি ট্রফির আক্ষেপ এতদিন বাংলাদেশের ক্রিকেটে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। ২০০৯ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে জিততে জিততে হেরেছে শ্রীলঙ্কার কাছে। ২০১২ সালে এশিয়া কাপের ফাইনালে মাত্র ২ রানের আক্ষেপ, ২০১৬ এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টির ফাইনালে উঠেও ভারতের কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত থাকতে হয়েছে বাংলাদেশকে।

এবার সেই আক্ষেপ ঘোচানোর মিশনে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২২২ রান। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে সবকটি উইকেট হারিয়ে শ্রীলঙ্কা সংগ্রহ করে ২২১ রান।

দলে ফিরেই মিরাজ তৃতীয় ওভারেই গুনাথিলাকাকে সাজঘরে পাঠান। ষষ্ঠ ওভারে ৯ বলে ২৮ রান করা কুশল মেন্ডিসের উইকেট তুলে নিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি।

প্রথম ছয় ওভারের মধ্যেই দুই উইকেট হারিয়ে শুরুতেই কিছুটা চাপের মুখে পড়েছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে ৭১ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা ভালোভাবেই সামলে নিয়েছিলেন নিরোশান ডিকওয়েলা ও উপুল থারাঙ্গা। অবশেষে ২৪তম ওভারে এসে এই প্রতিরোধ ভেঙেছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ৪২ রান করে ফিরে গেছেন ডিকওয়েলা। ওপেনার উপুল থারাঙ্গা অবশ্য আরও বেশ কিছুক্ষণ ভুগিয়েছেন বাংলাদেশের বোলারদের। শেষপর্যন্ত ৩৬তম ওভারে এসে সফলতা পেয়েছেন মুস্তাফিজ। ৫৬ রান করা থারাঙ্গাকে আউট করে কিছুটা স্বস্তি ফিরিয়েছেন বাংলাদেশ শিবিরে।

থারাঙ্গা আউট হওয়ার পর থেকেই রানের চাকা ধীরে ঘুরিয়েছে শ্রীলঙ্কা। দুই বিপদজনক ব্যাটসম্যান থিসারা পেরেরা ও আসেলা গুনারত্নেকেও বেশিক্ষণ উইকেটে থাকতে দেননি রুবেল হোসেন। শেষপর্যায়ে অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালের ৪৫ ও আকিলা ধনঞ্জয়ের ১৭ রানের ইনিংসে ভর করে স্কোরবোর্ডে ২২১ রান জমা করেছে লঙ্কানরা।

বাংলাদেশের পক্ষে দারুণ বোলিং করে নজর কেড়েছেন দুই পেসার রুবেল হোসেন ও মুস্তাফিজ। চারটি উইকেট নিয়েছেন পেসার রুবেল, আর ১০ ওভার বল করে মাত্র ২৯ রানের বিনিময়ে দুটি উইকেট নিয়েছেন মুস্তাফিজ।

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
x

Check Also

টাইগারদের থাবায় বিধ্বস্ত লঙ্কানবাহিনী

ক্রাইম প্রতিদিন ...