সংবাদ শিরোনাম
Home / সারাদেশ / সাতক্ষীরায় গাছে বেঁধে গৃহবধূকে নির্যাতন : স্বামী, ভাসুর আটক

সাতক্ষীরায় গাছে বেঁধে গৃহবধূকে নির্যাতন : স্বামী, ভাসুর আটক

ক্রাইম প্রতিদিন, হেলাল উদ্দীন, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার দহাকুলায় এক গৃহবধূকে গাছের সঙ্গে বেঁধে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল শুক্রবার সকালে সদর উপজেলার দহাকুলা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী কাবিদ ওরফে কাবিল ও ভাসুর হাবিদ ওরফে হাবিলকে আটক করেছে। আহত গৃহবধূ আনোয়ারা খাতুনকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, যৌতুকের দাবিসহ নানা কারণে স্বামী কাবিদ তার স্ত্রী আনোয়ারাকে প্রায়ই মারধর করতো। গতকাল সকালে ভাত খাওয়া নিয়ে আবারও তার সঙ্গে ঝগড়া হয়। এ সময় স্বামী ও ভাসুর তাকে বকাবকি করে। আনোয়ারা এর প্রতিবাদে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করার হুমকি দেন। পরে স্বামী কাবিদ ও তার ভাই হাবিদ আনোয়ারাকে বাড়ির উঠোনে একটি আমগাছে বেঁধে লোহার রড, লাঠি ও ঝাঁটা দিয়ে নৃশংসভাবে মারধর শুরু করে। আনোয়ারার চিত্কারে প্রতিবেশিরা ছুটে এলেও তারা তাকে কাবিদ হাবিদের হুমকির মুখে উদ্ধার করার সাহস পায়নি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কামরুল ইসলাম ক্রাইম প্রতিদিনকে জানান, তিনি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশের উপস্থিতিতে কামরুল ইসলাম আনোয়ারার বাঁধন খুলে তাকে মুক্ত করেন। এরপরই তাকে চিকিত্সার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

তবে, গৃহবধূ আনোয়ারা খাতুনের দাবি ভাসুরের কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় তার ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি। ঘটনাস্থল থেকে ব্রহ্মরাজপুর পুলিশ ফাঁড়ির সহকারী পরিদর্শক অচিন্ত কুমার ক্রাইম প্রতিদিনকে জানান, দুই ভাইকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি স্বামী-স্ত্রীর ব্যাপার, এখন দেখা যাক কি করা যায়’।

এ ব্যাপারে সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শরিফুল ইসলাম ক্রাইম প্রতিদিনকে জানান, গৃহবধূর স্বামী ও ভাসুরকে আটক করে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তিনি আরো জানান, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email