Home / দুর্ঘটনা-সংঘর্ষ / ২ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩, আহত ৩৬

২ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩, আহত ৩৬

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : গাইবান্ধা, ও যশোরে সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো কমপক্ষে ৩৬ জন। আজ শনিবার সকাল ৯টা থেকে ১২টার মধ্যে এ সব দুর্ঘটনা ঘটে।

গাইবান্ধা : গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ নামক এলাকায় রড বোঝাই ট্রাক উল্টে অন্তত ৭ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরো ২৫ শ্রমিক।  আজ শনিবার দুপুর ১২টার দিকে রংপুর মহাসড়কের জুনদহ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটেছে।

গোবিন্ধগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি আবুল বাসার জানান, আজ দুপুরে ঢাকা থেকে রড বোঝই একটি ট্রাক রংপুর যাওয়ার পথে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের পলাশবাড়ী উপজেলার জুনদহ নামক জায়গায় পৌঁছলে এক মোটরসাইকেল আরোহীকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ট্রাক টি খাদে পড়ে উল্টে যায়। এ সময় ট্রাকের ওপরে থাকা ৪০ জন যাত্রীর মাধ্যে ৭ জন ঘটনা ঘটনাস্থলে মারা যায়। আহত হয় অন্তত ২৫ জন। বাকিদের উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

পলাশবাড়ী ইউএনও মো তোফাজ্জল হোসেন গণমাধ্যমকে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পলাশবাড়ী : গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার দক্ষিণ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বাসের ধাক্কায় ভটভটির ৪ জন যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ১০ জন।  আজ শনিবার সকাল স‍াড়ে ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও থানা-পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, রংপুর থেকে বগুড়ার দিকে যাচ্ছিল যাত্রীবাহী একটি লোকাল বাস। উপজেলা সদরে সরকার ফিলিং স্টেশনের সামনে এসে বাসটির একটি চাকা ফেটে যায়। এতে বাসচালক নিয়ন্ত্রণ হারান। বাসটি এ সময় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা ট্রলিকে ধাক্কা দেয়। বাসের ধাক্কায় ট্রলিতে থাকা তিন শ্রমিক ঘটনাস্থলেই নিহত হন। বাস ও ট্রলির ১০ জন আহত হন। তাঁদের পলাশবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পলাশবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল আলম দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ঘটনাস্থলে নিহত তিন শ্রমিকের পরিচয় এখনো পাওয়া যায়নি। এর মধ্যে দুজন শ্রমিকের লাশ পলাশবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়েছে। আরেক শ্রমিকের লাশ হাইওয়ে থানা-পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

ওসি জানান, বাসটি দুঘর্টনাস্থলে রেখে চালক পালিয়েছেন।

যশোর: যশোরের শার্শায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী ২ বোন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন মোটরসাইকেলের চালক।

শনিবার সকালে ৯টার দিকে নাভারন-সাতক্ষীরা সড়কের বাগআচড়া বাজারের ফাস্ট সিকিউরিটি ব্যাংকের সামনে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বাগআচড়া বালিকা বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী উপজেলার বাগুড়ি গ্রামের আলমগীর হোসেনের মেয়ে ফাতিমা খাতুন (১২) এবং একই বিদ্যালয়ের ৬ষ্ট শ্রেণির ছাত্রী একই গ্রামের ইব্রাহিম মোল্লার মেয়ে জেরিন (১১)। সম্পর্কে তারা মামাত-ফুফাত বোন।

আহত আলমগীর হোসেন (৪৫) বাগআচড়া কলেজের প্রভাষক। তাকে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
আলমগীর মোটরসাইকেলে করে তার মেয়ে ও ভাগনিকে স্কুলে পৌঁছে দিতে যাচ্ছিলেন। পথে বালু বোঝাই একটি ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সামনাসামনি তাদেরকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশু দুটি মারা যায়।

ট্রাকটি আটক করা হয়েছে, তবে চালক ও সহকারী পালিয়েছে বলে জানান নাভারন হাইওয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 12
    Shares