Home / বিনোদন / ইঞ্জিনিয়ার হয়েও অভিনেতা যারা

ইঞ্জিনিয়ার হয়েও অভিনেতা যারা

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : পেশা হিসেবে অভিনয়কে অনেকে প্রশংসা করেন। আবার কেউ কেউ এটিকে নেতিবাচক দৃষ্টিতে দেখেন। এসবের মধ্যেও অনেক অভিনেতা রয়েছেন যারা ইঞ্জিনিয়ারিং পেশার চেয়ে অভিনয়কে বেশি ভালবেসেছেন। ভারতের অভিনয় জগতে এমন অন্তত ৯ জন রয়েছেন যারা অভিনয়ে পা রেখে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে। তারা হলেন;

কৃতি স্যানন: কৃতি স্যানন ভারতের নয়ডার জেপি ইন্সটিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজি থেকে বি-টেক ইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করেছেন। সেখান থেকে তিনি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিগ্রি অর্জন করেন।

তাপসী পান্নু: ভারতীয় অভিনেত্রী তাপসী পান্নুর আসলে একজন কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার। তিনি কম্পিউটার সাইন্সে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন। কিন্তু পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছেন অভিনয়কে।

সোনু সুদ: অভিনেতা সোনু সুদ আসলে একজন ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং। এ বিষয়ের ওপর তার স্নাতক ডিগ্রি রয়েছে। কিন্তু ইঞ্জিনিয়ারিংয় ছেড়ে তিনি অভিনয়কেউ পেশা বানিয়েছেন।

শঙ্কর মহাদেবন: ভারতের খ্যাতিমান গায়ক শঙ্কর মহাদেবন। তিনি গায়ক হলেও তার পরাশোন কম্পিউটার সাইন্সে। কম্পিটার সাইন্সে তিনি স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

রীতেশ দেশমুখ: বলিউডের জনপ্রিয় নায়ক রীতেশ দেশমুখ সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ডিগ্রিপ্রাপ্ত। একাধারে তিনি একজন আর্কিটেক্টও। অনেকেই হয়তো জানেন না যে, শাহরুখ খানের ‘রেড চিলি এন্টারটেনমেন্ট’-এর অফিস তিনিই ডিজাইন করেছিলেন।

সুশান্ত সিংহ রাজপুত: অভিনয় করার জন্য মাঝপথে ইঞ্জিনিয়ারিং ছেড়ে দিয়েছিলেন ‘এমএস ধোনি: দ্য আনটোল্ড স্টোরি’ (২০১৬) খ্যাত অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুত।

আর মাধবন: ‘রহেনা হ্যায় তেরে দিল মে’ খ্যাত এই তারকাও ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ার। ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিংএ তিনি স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেন।

আমিশা পাটেল: অভিনেত্রী আমিশা পাটেল বায়ো টেকনোলজি ইঞ্জিনিয়ার। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়ো টেক ইঞ্জিনিয়ারিং-এ ডিগ্রিপ্রাপ্ত অভিনেত্রী আমিশা পাটেল।

আক্কিনেনি নাগার্জুনা: আক্কিনেনি নাগার্জুনা আদতে একজন দক্ষিণী অভিনেতা। তিনি অটোমোবাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়াশুনা করেছেন। কিন্তু পেশা হিসেবে নিয়েছেন অভিনয়।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 13
    Shares