Home / আইন-আদালত / এসিড নিক্ষেপ মামলায় ১জনের ১৪ বছর এবং ২জনের ৭বছর কারাদন্ড
ছবি: এম.লিটন-উজ-জামান, কুষ্টিয়া

এসিড নিক্ষেপ মামলায় ১জনের ১৪ বছর এবং ২জনের ৭বছর কারাদন্ড

ক্রাইম প্রতিদিন, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়ায় স্কুল ছাত্রী কাকলীর উপর এসিড নিক্ষেপের দায়ে হাফিজ (২২)’র ১৪ বছরসহ ৫০হাজার টাকা, এবং রাজিব(২৩) ও জুয়েল (২৪)’র ৭ বছরের কারাদন্ডসহ ১০হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুর দেড় টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী আসামীদের উপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, জেলার খোকসা উপজেলার নিশ্চিন্ত বাড়িয়া গ্রামের কামরুল সেখের কণ্যা দশম শ্রেনীরছাত্রী কাকলীকে প্রতিবেশী হাবিল সেখের ছেলে হাফিজ প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যোক্ত ও বিয়ের প্রস্তাবে চাপ দিতো। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে কাকলীর পিতা পাশের গ্রামের পানজো সেখের সাথে বিয়ে দিয়ে দেন। এতে ক্ষুব্ধ হাফিজ তার সহযোগী জালাল বিশ্বাসের ছেলে রাজিব ও শাজাহানের ছেলে জুয়েলকে সাথে নিয়ে ২০১৩ সালের ১২ সেপ্টেম্বর উপজেলার বরইচাড়া গ্রামে স্বামীর ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় রাত আড়াই জানালা ভেঙ্গে এসিড নিক্ষেপ করে। এঘটনায় এসিডদগ্ধ কাকলীর পিতা কামরুল সেখ বাদী হয়ে ৩জনের নামোল্লেখসহ খোকসা থানায় এসিড অপরাধ দমন আইনের ৫(খ) ও ৭ধারায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১৩সালের ২৬নভেম্বর ৬জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

সরকার পক্ষের কৌশুলী পিপি এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী জানান, বিজ্ঞ আদালতে দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে হাফিজ, রাজিব ও জুয়েলের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমানিত হওয়ায় এই রায় দিয়েছেন। আসামীদের উপস্থিতিতে ঘোষিত এই রায়ে হাফিজ সেখের ১৪ বছর কারাদন্ড ও ৫০হাজার টাকা, এবং রাজিব ও জুয়েলের ৭বছর কারাদন্ডসহ ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ডাদেশ দিয়েছেন। সেই সাথে অপর তিন আসামীদের বেকসুর খালাস দিয়েছে। আদায়কৃত টাকা ভুক্তোগীকে ক্ষতিপূরন হিসেবে প্রদানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 64
    Shares