Home / রাজনীতি / খালেদা জিয়ার অবস্থার অবনতি হলে সরকারকে দায় নিতে হবে

খালেদা জিয়ার অবস্থার অবনতি হলে সরকারকে দায় নিতে হবে

ক্রাইম প্রতিদিন, ঢাকা : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার কোনো অবনতি হলে তার দায় সরকারকে নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য বারিস্টার মওদুদ আহমদ।

খালেদা জিয়াকে কারাগারে যেভাবে রাখা হয়েছে তাতে তিনি মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) সামনে সাংবাদিকদের এ মন্তব্য করেন।

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য আজ কারাগার থেকে হাসপাতালে আনা হয়। এদিন হাসপাতালের সামনে বিএনপির শীর্ষ স্থানীয় নেতা মওদুদ আহমদ ও মাহবুব উদ্দিন খোকনসহ শতাধিক কর্মীকে দেখা গেছে।

এ ছাড়া খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমানের স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি ও তার দুই মেয়ে উপস্থিত ছিল।

মওদুদ আহমদ বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ভার সরকারের নেয়ার প্রয়োজন নেই। তাকে মুক্ত দিলে তিনি নিজেই নিজের চিকৎসা করাতে পারবেন। তিনি যে সত্যিকারের অসুস্থ আজকের এ অবস্থায় তা প্রমাণিত হয়েছে। তাকে হাটিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হবে; কেননা তার হাঁটুতে ব্যাথা। কী কারণে তার পরীক্ষা করা হচ্ছে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানেন না উল্লেখ করে তিনি অনতিবিলম্বে খালেদা জিয়া মুক্তি দাবি করেন।

এসময় মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য সরকার যে বোর্ড গঠন করেছে সেখানে সরকারের চিকিৎসকদের পাশাপাশি খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক নিউরোমেডিসিনের ওয়াহিদুজ্জামান ও মেডিসিনের এফ এম সিদ্দীকীসহ কয়েকজন আছেন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়। ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয় খালেদা জিয়ার ছেলে ও বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ অন্য পাঁচ আসামিকে। রায় ঘোষণার পর থেকেই বিএনপি নেত্রী বন্দি রয়েছেন।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 18
    Shares