খালেদা জিয়ার মুক্তির স্লোগান দিতে দিতে নেতার মৃত্যু

ক্রাইম প্রতিদিন : দীর্ঘদিন পর গতকাল রোববার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা করার অনুমতি পায় বিএনপি। ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ফুলসতী ইউনিয়ন থেকে সেই জনসভায় যোগ দিয়েছিলেন একদল নেতাকর্মী। দুপুর ২টায় জনসভা শুরু হয়ে চলে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত।

জনসভা শেষ হলেও একজন ফিরবেন না আর কোনোদিন। তিনি হলেন ফুলসতী ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি হান্নান মাতুব্বর। এখন তাঁর লাশ নিয়েই বাড়ি ফিরতে হচ্ছে রাজনৈতিক যোদ্ধাদের।

নগরকান্দা উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত আলী শরিফ বলেন, গতকাল জনসভা চলাকালে খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই, দিতে হবে, দিতে হবে- বলে স্লোগান দিচ্ছিলেন হান্নান মাতুব্বর। একপর্যায়ে তিনি জনসভাস্থলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

একই কথা জানিয়ে ফুলসতী ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান মনির মিয়া বলেন, গতকাল জনসভায় খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে স্লোগান দিতে দিতে মাটিতে পড়ে যান হান্নান মাতুব্বর। সেখান থেকে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদের তত্ত্বাবধানে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

হান্নান মাতুব্বরের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ।

এদিকে হান্নান মাতুব্বরের জানাজা আজ সোমবার বাদ আছর রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ভাইস চেয়ারম্যান আহমদ আজম খান, আবুল খায়ের ভূইয়া, অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, কাজী রওনক হোসেন, শামসুজ্জামান সুরুজ, মোহাম্মদ শামীম, তকদীর হোসেন জসীমসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। জানাজা শেষে বিএনপির পক্ষ থেকে মরহুমের কফিনে পুস্পস্তবক দিয়ে সম্মান জানানো হয়।

মরহুমের লাশ নিয়ে তাঁর গ্রামের বাড়ির উদ্দেশে রওনা হয়েছেন স্বজন ও রাজনৈতিক সহযোদ্ধারা। কাল মঙ্গলবার সকাল ৮টার দিকে নগরকান্দার রানপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পোড়াদিয়া গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। নগরকান্দা উপজেলা বিএনপি ও উপজেলার সব ইউনিয়ন বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনের সব নেতৃবৃন্দকে জানাজায় উপস্থিত থাকার জন্য নগরকান্দা উপজেলা বিএনপির পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তাঁর বিবৃতিতে বলেন, বাংলাদেশী জাতীয়তাবাদী দর্শনে বিশ্বাসী হান্নান মাতুব্বরের উদ্যম, ত্যাগ ও সাহসী ভূমিকা স্থানীয় নেতাকর্মীদের সব সময় অনুপ্রেরণা যোগাবে।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 28
    Shares