গরমিল তথ্য দেয়ায় মিল মালিককে আটক

ক্রাইম প্রতিদিন, কুড়িগ্রাম : কুড়িগ্রামের উলিপুর খাদ্য গুদামে ধান-চাল ও গম সংগ্রহে খাদ্য কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক এসব অভিযোগের ভিত্তিতে খাদ্য গুদাম পরিদর্শনে এসে গুদামটির মজুদ মালামালের সঙ্গে স্টক রেজিস্টারের গড়মিল দেখতে পান।

পরে খাদ্য বিভাগের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ মিল পরিদর্শনে গিয়ে পরিত্যক্ত থাকায় এক মিল মালিককে আটক করা হয়। এ ঘটনায় উপজেলাজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

জানা গেছে, খাদ্য বিভাগের ধান,চাল ও গম সংগ্রহে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠায় মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসক তার কার্যালয়ে খাদ্য বিভাগের কর্মকর্তা ও মিল মালিকদের নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসেন। পরে তাৎক্ষণিক জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন উলিপুর খাদ্য গুদাম ও ছাটাইয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ পরিত্যক্ত মিল পরিদর্শন করেন। এসময় মিথ্যা তথ্য দেয়ার অপরাধে ‘আজাদ চাল কল’র মালিক আবুল কালাম আজাদকে গ্রেফতার করা হয়।

অপরদিকে, দুর্নীতি তদন্তে খাদ্য বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক (সংগ্রহ) আব্দুস সালামকে প্রধান করে খাদ্য বিভাগের মহা-পরিচালক একটি তদন্ত টিম গঠন করেন এবং মাঠ পর্যায়ে তদন্ত শুরু করে দিয়েছেন। জেলা প্রশাসক তদন্তকালে গুদামটির মজুদ মালামালের সাথে স্টক রেজিস্টারের গড়মিল দেখতে পান। পরে গুদামের সকল কার্যক্রম বন্ধ করে মজুদ পরীক্ষার জন্য ৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সমন্বয়ে গঠিত একটি টিমকে দায়িত্ব দেন। ছাটাইয়ের জন্য খাদ্য বিভাগের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ মিল পরিদর্শনে গিয়ে জেলা প্রশাসক অসন্তোষ প্রকাশ করেন।

উলিপুর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন বলেন, যে কোনো মূল্যে চাল, ধান ও গম সংগ্রহে দুর্নীতি বন্ধ করতে হবে। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেয়া হবে না।