Home / খেলাধুলা / জিতেছে পাঞ্জাব, হারেননি ধোনি!

জিতেছে পাঞ্জাব, হারেননি ধোনি!

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : শেষ ৩০ বলে যদি কোনো দলের জন্য প্রয়োজন হয় ৭৬ রান তখন এক প্রকার পরাজয় মেনেই নেন ব্যাটিং দলের সমর্থকরা।শেষ ৫ ওভারে ৭৬ রান যে দুরূহ ব্যাপার তা এক বাক্যে সবাই স্বীকার করবেন। কিন্তু উইকেটে যে মাহেন্দ্র সিং ধোনি। কত কঠিন ম্যাচ তার দৃঢ় ব্যাটে বের হয়ে এসেছে। এমন সমীকরণের কারণেই মূলত চেন্নাই সুপার কিংসের সমর্থকরা আশায় বুক বেঁধে ছিলেন। আশাহত করেননি ধোনিও। লড়ে গেছেন শেষ পর্যন্ত।

খেলায় মূলত শেষ দুই বল পর্যন্ত ছিল টান টান উত্তেজনা। শেষ দুই বলে প্রয়োজন ছিল ১১ রান। এ সময় মোহিত শর্মা অফসাইডের অনেক বাইরে বল করে ধোনিকে ডটবল করতে বাধ্য করেন। ম্যাচ জয়ের জন্য শেষ বলে প্রয়োজন ১১। অর্থাৎ, ম্যাচ জয়ের উদযাপন শুরু করে দেয় পাঞ্জাব। তবে শেষ বলেও ধোনি ছক্কা হাঁকান। কিন্তু তা কেবল ব্যবধানই কমায়। চার রানে জয় পায় প্রীতি জিনতার দল।

ধোনি অপরাজিত থাকেন ৭৯ রানে। মাত্র ৪৪ বলে খেলা তার ইনিংসটি ছিল ৫টি ছক্কা ও ছয়টি চারে সাজানো। এর আগে ক্রিস গেইলের ব্যাটিং তাণ্ডবে ১৯৭ রান সংগ্রহ করে কিংস একাদশ পাঞ্জাব।

আইপিএলের চলমান আসরে খেলতে নেমেই তাণ্ডব শুরু করেন ক্রিস গেইল। চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে মাত্র ৩৩ বলে তিনি ৬৩ রান করেন। তার ইনিংসটি ছিল চারটি ছক্কা ও সাতটি চারে সাজানো।

রোববার পাঞ্জাবের ক্রিকেট এসোসিয়েশন মাঠে টসে জিতে পাঞ্জাবকে আগে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান চেন্নাই সুপার কিংসের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি।

আগে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই চার ছক্কার ফুলঝুড়ি বইয়ে দেন ক্রিস গেইল ও লোকেশ রাহুল। দলের প্রথম ৮ ওভারে ৯৬ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন গেইল-রাহুল। ২২ বলে ৩৭ রান করে আউট হন রাহুল।

এরপর দ্বিতীয় উইকেটে মানকি আগরওয়ালকে সঙ্গে নিয়ে ফের ৫৩ রানের জুটি গড়ার পর ফিরে যান গেইল। শেন ওয়াটসনের বলে ইমরান তাহিরের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এই ক্যারিবীয়ান।

১৯ বলে ৩০ রান করে ফেরেন আগরওয়াল। এরপর যুবরাজ সিংয়ের ২০ এবং শেষ দিকে নায়ারের ১৭ বলে গড়া ২৯ রানের ইনিংসে ভর করে ৭ উইকেটে ১৯৭ রান সংগ্রহ করে পাঞ্জাব।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 12
    Shares