Home / ক্রাইম প্রতিদিন / ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিক যুগলসহ ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রেমিক যুগলসহ ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার

ক্রাইম প্রতিদিন, পীরগঞ্জ : ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে নন্দলাল মিলন(১৯) ও সুধা রানী(১৬) নামে ২ প্রেমিক যুগল সহ ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার শালগড়া গ্রামের একটি আমবাগন থেকে ঐ প্রেমিক-প্রেমিকার এবং হাসপাতাল থেকে এক গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এলাকাবাসি জানায়, পীরগঞ্জ উপজেলার ঘিডোব খালপাড়া গ্রামের উপেন্দ্র নাথের ছেলে নন্দলাল ওরফে মিলন এর সাথে পাশ্ববর্তী শালগড়া গ্রামের তারেন চন্দ্রের মেয়ে সুধা রানীর প্রেম সম্পর্ক ছিল। তাদের এ প্রেম সম্পর্ক ছেলে পক্ষ মেনে নিলেও মেয়ে পক্ষের আপত্তি ছিল। এ অবস্থায় ২ দিন আগে প্রেমিক-প্রেমিকা বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়।

মঙ্গলবার সকালে প্রেমিকার পিতার বাড়ির পাশ্বে শালগড়া এলাকার জনৈক এরশাদ এর আম বাগানে প্রেমিক নন্দলালের ঝুলন্ত এবং মাটিতে পড়া থাকা প্রেমিকা সুধা রানীর মরদেহ দেখতে পায় এলাকার লোকজন। পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ দুপুরে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে। নন্দলালের ধর্ম ভাই পলাশ রায়ের অভিযোগ, আমরা মেনে নিলেও মেয়ে পক্ষ তাদের প্রেম সম্পর্ক মেনে নেয়নি। তারাই কৌশলে নন্দলালকে হত্যা করেছে। অপর দিকে মেয়ে পক্ষের অভিযোগ সুধা রানীকে হত্যা করা হয়েছে। দায় এড়াতে ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করছে ছেলে পক্ষ।

পীরগঞ্জ থানার ওসি আমিরুজ্জামান জানায়, একটি নিম গাছে ওরনা দিয়ে গলায় ফাস লাগানো অবস্থায় নন্দলালের ঝুলন্ত এবং গাছের নিচে মাটিতে পড়ে থাকা সুধা রানীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রেম ঘটিত কারণে তাদের মৃত্য হয়েছে। তবে এটি হত্যা না আত্নহত্যা তা ঠিক এই মুহুর্তে বলা যাচ্ছে না। তদন্ত চলছে। বিকালে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দু’ পক্ষেরই থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল।

এদিকে পারিবারিক কলহের জেরে রানীশংকৈল উপজেলার বাচোর গ্রামের যুক্তি রানী (২৯) বিষ পান করলে তাকে পীরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধী অবস্থায় মঙ্গলবার ভোর রাতে হাসপাতালে মারা যান তিনি।

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 34
    Shares