Home / বাংলাদেশ / সারাদেশ / ডাচ-বাংলা থেকে ছাত্রীদের উপবৃত্তির টাকা উধাও!

ডাচ-বাংলা থেকে ছাত্রীদের উপবৃত্তির টাকা উধাও!

ক্রাইম প্রতিদিন, শিমুল জাহিদ, রাজশাহী : মোবাইল প্রতারক চক্র রাজশাহীর পবার নওহাটা মহিলা ডিগ্রী কলেজের অন্ততঃ ২০ জন ছাত্রীর উপবৃত্তির টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। টাকা হারিয়ে ভুক্তভোগিরা হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে পবা থানায় মৌখিক অভিযোগ করেছেন ছাত্রীসহ কলেজ অধ্যক্ষ কাউসার আলী।

জানা যায়, কয়েকদিন ধরে নওহাটা মহিলা ডিগ্রী কলেজের ছাত্রীদের ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের রকেট কর্তৃপক্ষ পরিচয়ে বিভিন্ন নম্বর থেকে টাকা জমা দেয়ার কথা হয়। তারা পরে টাকা তুলতে গেলে জানানো হয় টাকা কেস আউট হয়েছে। ছাত্রী সুমাইয়া খাতুন, শর্মিলা খাতুন, তাহেরা ইয়াসমিন, মাইশ্যা খাতুন, বিথি খাতুন আঁখি খাতুনের কাছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের রকেট কর্তৃপক্ষ পরিচয়ে প্রথমে ফোন কল করা হয়। পরে খুদে বার্তা। গ্রাহকের ব্যক্তিগত নাম্বারটির নিরাপত্তার সুবিধার্থে জানতে চায় কিছু তথ্য। এরপর হারিয়ে গেছে তাদের টাকা। তাদের মত ওই কলেজের অন্ততঃ ২০ জন ছাত্রীর টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। ছাত্রী সুমাইয়া খাতুন জানান, তাকে ডাচ্-বাংলা রকেট কর্তপক্ষের কথা বলে তথ্য নেই। পরে সে জানতে পারে ০১৭৪৫৬৩৭১৩৪ নম্বর থেকে টাকা তুলে নিয়েছে।

কলেজ অধ্যক্ষ কাউসার আলী বলেন, কয়েকবছর থেকে প্রতিষ্ঠানের পিন নন্বর ব্যবহার করে ছাত্রী উপবৃত্তির টাকা উত্তোলন করে থাকে। হঠাৎ করে কয়েকদিন আগে থেকে মোবাইল প্রতারক চক্ররা কৌশলে তাদের নম্বর ও পিন জেনে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। তিনি ডাচ্-বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং রকেট কাস্টমার কেয়ার সেন্টার নগরীর নিউমার্কেট শাখায় অভিযোগ জানালে বলা হয়, যে নাম্বারটি থেকে ফোন বা খুদে বার্তা পাঠানো হয়েছে সেটি তাদের নয়। রকেটের নিজস্ব নাম্বারে (+) চিহৃটি নেই। কোন প্রতারক চক্র এটি করেছে। ফলে টাকা উদ্ধার হবে কি-না তা জানাতে পারেনি রকেট কর্তৃপক্ষ। এ ব্যাপারে পবা থানায় মৌখিক অভিযোগ দেয়া হয়েছে। আজ লিখিত অভিযোগ দিবেন।

পবা থানা অফিসার্স ইনচার্জ এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। মোবাইল ট্যাকিং-এর মাধ্যমে অপরাধিদের সনাক্তসহ আটকের পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, দেশে বর্তমানে ১৮টি মোবাইল ব্যাংকিংসেবা রয়েছে। সর্বমোট নিবন্ধিত ৫ কোটি ৮৫ লাখ গ্রাহকের মধ্যে সচল এ্যাকাউন্ট ২ কোটি ৩১ লাখ। এর মধ্যে গ্রাহক ও লেনদেনের দিক থেকে দ্বিতীয় শীর্ষ অবস্থানে ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের রকেট। রকেট সূত্র জানায়, তাদের নিবন্ধিত গ্রাহক সংখ্যা দেড় কোটি। এর মধ্যে সচল এ্যাকাউন্টের সংখ্যা ৬০ শতাংশ বা ৯০ লাখের মতো।

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 1
    Share
x

Check Also

যে কারণে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ হয়নি

ক্রাইম প্রতিদিন, ...