Home / সারাদেশ / নোয়াখালীতে একরামুল করিম চৌধুরী এমপি’র জন্মদিন পালন

নোয়াখালীতে একরামুল করিম চৌধুরী এমপি’র জন্মদিন পালন

নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এমপির ৫৬তম জন্মদিন পালিত হয়েছে।

শনিবার সকাল থেকে নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে জেলা, উপজেলা, শহরের নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে প্রিয় নেতাকে শুভেচ্ছা জানান।

তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান, নোয়াখালী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বেঙ্গল গ্রুপের চেয়ারম্যান মোর্শেদ আলম,জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও তমা গ্রুপের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক,জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ড.জাফর উল্যাহ,জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মিনহাজ আহমেদ জাবেদ,সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন,শহর আওয়ামীলীগ সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক আবদুল মমিন বিএসসি,সাংগঠনিক সম্পাদক সামছুদ্দিন সেলিম, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও প্রথম শ্রেণীর ঠিকাদার মাহমুদুর রহমান জাবেদ,জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক একরামুল হক বিপ্লব,ছাত্রলীগ সভাপতি আসাদুজ্জামান আরমান,সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসনাত আদনানসহ আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

তিনি ১৯৬২ সালের ৯ জুন নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার ২নং সুন্দলপুর ইউপির মরহুম দানবীর হাজী মোঃ ইদ্রিস এর পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। পিতা হাজী ইদ্রিস ছিলেন আওয়ামীলীগের প্রাণ পুরুষ। পিতার আদর্শকে লালন করে তিনি জেলা আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হয়ে জেলা আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ ও ২০০৪ সালে নোয়াখালী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন।

এরপর ২০০৮ সালে নোয়াখালী ৪ আসন থেকে বিএনপি প্রার্থী মোঃ শাহাজাহানকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে এমপি নির্বাচিত হন। এরপর ২০১৩ সালের ৬ জানুয়ারীতে বিনা প্রতিন্দ¦ন্ধিতায় পুনরায় সংসদ সদস্য ও ২০১৬ সালে জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনে পুনরায় সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হন। তিনি এ এন্ড জে গ্রুপের চেয়ারম্যান এবং ব্রান্ডউইন গ্রুপের চেয়ারম্যান।

সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবার পর থেকে জেলার বিভিন্ন উপজেলাকে রাজনৈতিক কোন্দলমুক্ত করে দলকে করেছেন সুসংগঠিত। যে জেলা ছিল বিএনপির ঘাটি নামে পরিচিত। মরহুম স্পীকার মালেক উকিলের পর যে আসনটি আওয়ামীলীগের কোন নেতা উদ্ধার বা রক্ষা করতে পারেননি।

তিনি মানুষকে ভালোবাসা দিয়ে দলীয় নেতাকর্মীকে শৃংখলাবদ্ধ করে স¦চ্ছ নির্বাচনের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে সে আসনটি উদ্ধার করতে সক্ষম হন। এ জন্য তাকে নোয়াখালীর মাটি ও মানষের নেতা উপাধিতে ভুষিত করেন জেলাবাসী।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 165
    Shares