Breaking News

নোয়াখালীতে চাঁদার দাবীতে যুবলীগের সভাপতি জমিদার বাহিনীর হামলা ভাংচুর ,লুটপাট

সালাহ উদ্দিন সুমন,নোয়াখালী:নোয়াখালী সদর উপজেলার বাটিরটেক চৌমুহনী বাজারে সোমবর রাত সাড়ে ১০টায় আদিপত্য বিস্তার ও চাঁদার দাবীতে ব্যবসায়ীদের উপর বাংলা বাজার এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী জমিদার বাহিনীর হামলার গটনা ঘটে। এসময় সনত্রাসীরা প্রায় ৬০/৭০টি দোকান ভাঙচুর ও লুটপাট করে বলে ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন। এতে প্রায় ১০লাখভ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তারা দাবী করেন।

বাটিরটেক বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন নিজাম জানান, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি আবুল হোসেন জমিদার তার বাহিনী নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবৎ বাজারের ব্যবসায়ীদের উপর অন্যায় অবিচার করে আসছে। বাজার ব্যবসায়ী মহসীনের বাজার সংলগ্ন উত্তর পার্শ্বের জমি তার বাহিনী দিয়ে জোর পুর্বক দখল করে ৫ লাখ টাকার দাবী করে।

চাঁদা না দেয়ায় সোমবার বিকেলে জমিদারের ৬০/৭০ জন লোক অ¯্র সশ্র নিয়ে বাজারে আতংক সৃষ্টি করে ব্যবসায়ীদের গাল মন্দ ও মারধরের হুমকি দিয়ে বাজারে মিছিল করে।
একপর্যায়ে ব্যবসায়ীদের সাথে  সন্ত্রাসীদের ধাওয়া পালটা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরে রাত ১০টায় জমিদার দলবল বাড়িয়ে ১৫০/ ২০০জন সন্ত্রাসী নিয়ে রামদা, কিরিছ. হকিষ্টিক লাঠি ও বিভিন্ন ধারালো অ¯্র নিয়ে বাজারে ঢুকে পড়ে এলোপাতাড়ি ব্যবসায়ীদের দোকানে হামলা ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।

তারা মা মাইক ও ইলেকট্রনিক্স এর মালামাল লুট করে বাকী মালামালে আগুন ধরিয়ে দেয়, মহসীনের দোকান ও ট্রাকের গ্লাস ভাঙচুর করে, নাহিদষ্টোর, আজাদের দোকান, জমির ষ্টোর,ফিরোজের দোকান,বাসেকের দোকান,আলতাফ ডাক্তারের দোকান,মাসুদের দোকান, নুর উদ্দিনের দোকান, আব্দুল কাদেরের দোকান, নুরুজ্জামানের দোকান, নুর উদ্দিন কামারের দোকান, ইঞ্জিনিয়ার মোতালেবের মার্কেটের ১৩টি দোকান ও ফুট পাতের তরিতরকারী ব্যবসায়ীদের দোকান সহ ৬০/৭০টি দোকান ভাংচুর ও লুটাপট করে। প্রান ভয়ে ব্যবসায়ীরা দিকবিদিক ছুটাছুটি করে অনেকে আহত হয়। এবিষয়ে বাজার ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে সংসদ সদস্য এরামুল করিম চৌধুরীকে জানাবেন এবং মামলা করেছেন বলে বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন নিজাম জানান।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন