শিরোনাম

পঞ্চগড়ে অবৈধ ঋণ কার্যক্রম : তদন্ত কমিটি গঠন

ক্রাইম প্রতিদিন, মোঃ সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড় : পঞ্চগড়ে দীর্ঘ দিন যাবত সমবায় সমিতির নামে অবৈধ ঋণ কার্যক্রম (কিস্তি) চালিয়ে যাচ্ছে। ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ সুদ গ্রহন করে সাধারন মানুষকে সর্বশান্ত করছে। যাতে নিয়মনীতির কোন বালাই নেই। বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ হওয়ার পর দীর্ঘ ১মাস পর জেলা সমবায় কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মামুন কবীরের নির্দেশে জেলা সমবায় কার্যালয়ের পরিদর্শক আল মামুন কে আহ্বায়ক করে ২ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে ২৪ অক্টোবরের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

অতীতের মহাজন জোতদারের মতোই সেডস সঞ্চয় ও ঋণদান সমবায় সমিতি, পুষ্প মহিলা সমবায় সমিতি,গলেহা ঐক্য কল্যাণ কৃষক সমবায় সমিতি, এ প্রতিষ্ঠানগুলো ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বার্ষিক প্রতিবেদনে কারো ঋণ কার্যক্রম নেই। এই খাত থেকে সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব। প্রত্যেক সমবায় সমিতি বার্ষিক রিপোর্টের সাথে সমবায় সমিতির প্রকৃত অবস্থার কোন মিল নেই।

সেডস এর সদস্য সংখ্যা ৩৫ জন, পুষ্প সদস্য সংখ্যা ২০ জন, এদের প্রকৃত সদস্য সংখ্যা ৩/৪ হাজার ছাড়িয়েছে। এ সব প্রতিষ্ঠান সামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্য দুরীকরনের কথা বলে বিভিন্ন ব্যাবসায়ী গৃহবধুসহ তৃণমুল পর্যায়ে সঞ্চয় সংগ্রহ করে ক্ষুদ্রঋণ থেকে শুরু করে ব্যাবসায়িক ঋণ প্রথা চালু করে সহজ শর্তে ঋণ পাওয়ার আশায় সাধারণ মানুষ এসব নামধারী সমিতির প্রতি ঝুঁকছে।

দৈনিক,সাপ্তাহিক, বা পাক্ষিক কিস্তিতে ঋণ আদায় শুরু হলে গড় হিসাবে দেখা যায় সুদের হার ৩০-৪০ শতাংশ। প্রথম দিকে নগরীর বাজারের ব্যাবসায়ীদের ঘিরে এসব সমিতির কার্যক্রম চালু হয়। জগদল, গোয়ালঝার, হেলিপোট, ব্যারিষ্টার, গলেহা বাজার, গেদের কুড়ি, গড়ের ডাঙ্গা, মানিকপীর, বোদা, জেলার বিভিন্ন হাট বাজারে এসব সমিতির ঋণ কার্যক্রম চালু হওয়ার পর তাদের পরিধী গ্রামাঞ্চলে বেড়ে চলেছে।

জেলা সমবায় (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মামুন কবীর বলেন, ২ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে প্রতিবেদনে সত্যতা পাওয়া গেলে সমিতির নিবন্ধন বাতিলসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 32
    Shares
x

Check Also

পঞ্চগড়ে অবৈধ ঋণ কার্যক্রমে সয়লাব, সর্বশান্ত সাধারণ মানুষ

ক্রাইম প্রতিদিন, সাইদুজ্জামান রেজা, পঞ্চগড় : পঞ্চগড়ে দীর্ঘ ...