Home / জাতীয় / পুলিশ হেফাজতে মুত্যুর ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়া হবে : আইজিপি

পুলিশ হেফাজতে মুত্যুর ঘটনায় ব্যবস্থা নেয়া হবে : আইজিপি

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : পুলিশ হেফাজতে যদি কোনো মুত্যুর ঘটনা ঘটে, তাহলে রুলস অ্যান্ড রেগুলেশন অনুযায়ী জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

বৃহস্পতিবার বিকালে খুলনা নগরীর বয়রাস্থ পুলিশ লাইনস মাঠে মহানগর বিট পুলিশিং কার্যক্রম উদ্বোধন এবং মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদবিরোধী সুধী-সমাবেশে বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বলেন, সম্প্রতি ঢাকায় নিহত ছাত্রদল নেতা জাকির হোসেন মিলনের পরিবারের অভিযোগ ইঙ্গিত করে জাকির পুলিশের হেফাজতে মারা যায়নি বলে দাবি করেন আইজিপি। চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ সামাজিক সমস্যা। এসব সমস্যা সামাজিকভাবেই মোকাবেলা করতে হবে। সমাজের সব শ্রেণির সহযোগিতা ছাড়া মাদক ও সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নির্মূল করা সম্ভব নয়। আমাদের সন্তানদের সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে বন্ধু, স্কুলের পরিবেশ ও পরিবার। শিশুর ব্যক্তিত্ব তৈরি করে দেন তার স্কুলের শিক্ষকরা।একটি শিশু স্কুল বা কোচিং’এ যাওয়ার কথা বলে কোথায় যাচ্ছে তা পুলিশের জানার কথা নয়। সে খোঁজ রাখার দায়িত্ব বাবা মায়ের। তাই মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণের দায় কেবলমাত্র পুলিশের ওপর চাপানো যাবে না। মাদক নিয়ন্ত্রণে প্রয়োজন একটি হলিস্টিক অ্যাপ্রোজ।

তিনি বলেন, সমাজের সব স্টেকহোল্ডারদের নিয়ে তিনি সুধী-সমাবেশ করছেন। পুলিশের সব ইউনিট কর্মকর্তাদের সঙ্গেও আলাপ-আলোচনা করা হচ্ছে।এসব কিছুর মধ্য দিয়েই মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে কর্মপন্থা নির্ধারণ করা হবে।

আইজিপি বলেন, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ একটি ফোর্স হিসেবে কাজ করে। কিন্তু এটি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করতে হলে পরিবার, সমাজ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সব সামাজিক সংগঠনগুলোকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। এভাবে সমাজের সব কম্পোনেন্টগুলো এগিয়ে এলে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা সফল হতে পারব।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) কমিশনার মো. হুমায়ুন কবির সভাপতিত্বে সমাবেশে সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক, বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, মিজানুর রহমান মিজান, বিভাগীয় কমিশনার লোকমান হোসেন মিয়া, রেঞ্জ ডিআইজি মো. দিদার আহম্মদ, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান, মহানগর কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সভাপতি ডা. একেএম কামরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শেখ সৈয়দ আলী, জেলা সভাপতি মকবুল হোসেন মিন্টু, অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, খুলনা মেট্রোপলিটন এলাকায় পুলিশের সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে বিট পুলিশিং কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ড এবং গুরুত্বপূর্ণ ৪৫টি স্পটে বিট পুলিশিং কার্যালয় স্থাপন করা হয়েছে।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 5
    Shares