সংবাদ শিরোনাম
Home / আন্তর্জাতিক / বিনি সুতোর মালা গাঁথলেন মমতা, মোদীর কপালে ভাঁজ!

বিনি সুতোর মালা গাঁথলেন মমতা, মোদীর কপালে ভাঁজ!

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারস্বামীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান আদতে রূপ নিল মোদী বিরোধী ঐক্যের রিহার্সাল মঞ্চে। আর এই মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিরোধী জোটের পটভূমি তৈরি করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সকল অ-বিজেপি শক্তিকে এক মঞ্চে এনে বিনি সুতোর মালা গাঁথলেন তিনি। রচিত হল নয়া ইতিহাস।

কুমারস্বামীর শপথগ্রহণের অনুষ্ঠান সাক্ষী থাকল সমবেত মহাজোটের। বিজেপি বিরোধী জোটকে এক সুত্রে গেঁথে ফেলল কর্ণাটক। আর সহস্রটি মনকে এক সূত্রে গাঁথার কারিগর যেমন একদিকে রাহুল গান্ধী, অন্যদিকে অবশ্যই সেই নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বলা যায়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই মধ্যমণি এই বিনি সুতোর মালায়। আর রয়েছেন সোনিয়া গান্ধী। তাঁর ভূমিকাও কম গুরুত্বপূর্ণ নয় এই বিরোধী ঐক্য সংগঠনে।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, অবশ্যই এই ঐক্যের ছবি বিজেপি শিবিরে উদ্বেগ বাড়িয়ে দেবে, এই ছবি দেখে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়বেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কপালে। কারণ কর্ণাটকের শপথ-মঞ্চে দাঁড়িয়ে বিজেপি বিরোধী জোটের রিহার্সাল দিয়ে গেলেন তাবড় নেতা-নেত্রীরা। এখন শুধু পাকাপাকি ঘোষণা বাকি।

কে নেই এই ঐক্যের ছবিতে। আঞ্চলিক স্তরের সমস্ত দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাটিয়ে মোদী বিরোধিতায় এক মঞ্চে যেমন মমতা-সীতারাম, তেমনই এক মঞ্চে অখিলেশ-মায়াবতী, এক মঞ্চে চন্দ্রবাবু-জগমোহনরা। আর কে নেই এই মঞ্চে! আরজেডির তেজস্বীপ্রতাপ যাদব থেকে শুরু করে জেডিইউয়ের শারদ যাদব, সিপিএমের পিনারাই বিজয়ন থেকে শুরু করে কে চন্দ্রশেখর, আপের অরবিন্দ কেজরিওয়াল থেকে শুরু করে কমল হাসান প্রমুখের ভিড়ে জমজমাট শপথ গ্রহণ।

মঙ্গলবারই বেঙ্গালুরুতে পৌঁছে গিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কোনও রাখঢাক না করেই বলেছিলেন, এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বিরোধীদের কাছে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। সেইমতোই তিনি যাওয়ার পর থেকে বিভিন্ন নেতা-নেত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন। চন্দ্রবাবু নাইডু থেকে শুরু করে অরবিন্দ কেজরিওয়ালদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন।

এদিন কুমারস্বামীর শপথের পরে পুরো মঞ্চের দখল নিয়ে নেন বিরোধী ঐক্যে ইচ্ছুক নেতা-নেত্রীরা। সেখানে সামিল হন জেডিএসের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী, জেডিএস প্রধান দেবেগৌড়া। পাশাপাশি দেখা যায় রাহুল গান্ধী, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ছিলেন এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার। পাশাপাশি না থাকলেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একই ফ্রেমে ধরা পড়েন সীতারাম ইয়েচুরিও।

সোনিয়া গান্ধী যেমন মায়াবতীর হাত তুলে ধরেন, তেমনই মায়াবতী, অখিলেশ ও চন্দ্রবাবুকে নিয়ে একসঙ্গে কথা বলতে দেখা যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। আবার চন্দ্রবাবু নাইডুর সঙ্গে পাশাপাশি দেখা যায় রাহুল গান্ধীকে। রাহুলের পিঠে হাত দিয়ে ভরসা জোগান চন্দ্রবাবু নাইডু স্বয়ং।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, শপথের পরেও দফায় দফায় বৈঠকে বিরোধী ঐক্যের আলোচনা চলবে। মোট কথা আগামী লোকসভা নির্বাচনের লক্ষ্যে মাইলস্টোন হয়ে থাকতে চলেছে কর্ণাটক সরকারের শপথ-মঞ্চ। এখন স্রেফ ফিনিশিং টাচের অপেক্ষা। সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে