Home / সারাদেশ / ভাঙ্গাপুল প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ চার গ্রামের ভোগান্তি

ভাঙ্গাপুল প্রাথমিক বিদ্যালয় সহ চার গ্রামের ভোগান্তি

ক্রাইম প্রতিদিন, শরীয়তপুর : শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নে একটি কাঠের পুল ভেঙ্গে যাওয়ায় আশাপাশের ৪টি গ্রামের প্রায় ৪ হাজার লোকজনের যাতায়াত ব্যাহত হচ্ছে। ফলে ভোগান্তিতে পড়েছে ঐ পথে যাতায়াতকারী সাধারন মানুষ ও কোমলমতি শিক্ষার্থীরা। স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রায় দুই মাস আগে সখিপুর ইউনিয়নের বাহাউদ্দিন মুন্সি কান্দি গ্রামের পুলটি ভেঙ্গে পড়লেও এ পর্যন্ত পূননির্মানের কোন উদ্যোগ নিচ্ছেনা জনপ্রতিনিরা। স্থানীয় বাসিন্দা তকদির মিয়া ও অন্যান্যদের সাথে আলাপ করে জানাগেছে, পুলটি দিয়ে সখিপুরের তালিক্কা কান্দি, বেপারী কান্দি ও বাহাউদ্দিন মুন্সি কান্দি গ্রামের প্রায় ৪ হাজার লোক চলাচল করে। ১৫ বছর আগে নির্মিত কাঠের পুলটি আগে কয়েকবার পূননির্মান করা হলেও প্রায় ২বছর ধরে চলাচলের অনুপোযোগী হয়ে পড়ে। কিন্তু মেরামত না করায় দুই মাস আগে পুরোপুরি ভেঙ্গে পড়ে পুলটি। ফলে ঐ পথে চলাচল সম্পূর্নভাবে বন্ধ হয়ে যায়। তাছাড়া কাঠের তৈরী পুলটি দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে পাশের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কয়েক’শ কোমলমতি শিক্ষার্থীও। নিরুপায় হয়ে ঐসব শিক্ষার্থীরা এখন ভিন্নপথে চলাচল করছে। ১০৫ নং এনায়েত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আলমগীর হোসেন বলেন, পুলটি মেরামত না করায় আমাদের বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থীরা চলাচল করতে পারছেনা। সকলের সুবিদার্থে পুলটি জরুরি ভাবে মেরামত করা প্রয়োজন। বিদ্যালয়টির ৫ম শ্রেনীর শিক্ষার্থী মাহামুদা, জাহিদুল, সায়মা ও সারিয়া জানায়, পুলটি ভেঙ্গে যাওয়ায় তারা চলাচল করতে পারছেনা। ভেঙ্গে পড়ার আগেও তারা ভয়ে ভয়ে পারাপার হয়েছে।স্থানীয় বাসিন্দা মুক্তিযোদ্ধা ইসমাইল মাল ও তকদির মিয়া বলেন, পুলটি মেরামতের জন্য মেম্বারকে প্রায় ৫০ বার বলা হয়েছে কিন্তু কোন পদক্ষেপ নেয়নি। কিছুদিন আগে কয়েকজন লোক নিয়ে পুলটি ভেঙ্গে পড়ে। এখনও পুলটি মেরামতের জন্য তারা কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেনা। এ বিষয়ে স্থানীয় মেম্বার পারভেজ বেপারী বলেন, পুলটি মেরামতের জন্য যথাসাথ্য চেষ্টা করে যাচ্ছি। আশা করছি অতি শিঘ্রই পুলটি মেরামত করা হবে। এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাব্বির আহমেদ বলেন, পুলটি পূননির্মানে শীঘ্রই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

এই মুহূর্তে অন্যরা যা পড়ছে