Home / সারাদেশ / ভোলায় আগুনে পুড়ে ছাই ১৬ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান , দুই কোটি টাকা ক্ষতি

ভোলায় আগুনে পুড়ে ছাই ১৬ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান , দুই কোটি টাকা ক্ষতি

ক্রাইম প্রতিদিন, ভোলা : ভোলার লালমোহন উপজেলার পশ্চিম চর উমেদ ইউনিয়নের গজারিয়া বাজারের ১৬ ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও দুটি বসত ঘর অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

আগুন নেভাতে গিয়ে ৮জন আহত হয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে। এতে ব্যবসায়ীদের দুই কোটি টাকার বেশি ক্ষতি হয়েছে।শুক্রবার দুপুর দেড়টার সময় মো. মনিরুল ইসলামের চায়ের দোকানের চুলা থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত বলে ব্যবসায়ীদের ধারণা। ওই সময় ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে জুমার নামাজ আদায় করতে মসজিদে যায়। লালমোহন ও চরফ্যাশন উপজেলার দমকল বাহিনী(ফায়ারসার্ভিস) দুই ঘন্টা চেষ্টা করে সাড়ে তিনটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

ঘটনার পরপরই উপজেলা চেয়ারম্যান মো. গিয়াস উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুল হাসান ও লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর খায়রুল কবিরসহ উপজেলার গন্যমান্য ব্যক্তি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

গজারিয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি মো. সেলিম বলেন, গজারিয়াবাজার দুই শতাধিক বছরের পুরাতন। শুক্রবার দেড়টার সময় বাজারের স্কুল সড়কের(ভোলা চরফ্যাশন সড়কের দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে) মনিরের চায়ের দোকান থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়েছে। ব্যবসায়ীরা তখন মসজিদে নামাজ আদায় করছিল। ফলে মুহুর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

অগ্নিকান্ডে বাজারের মো. শাহনে, মো. মনিরুল ইসলাম, আরিফুল ইসলাম, আবু জাফর, আনোয়ার হোসেন, মো. পাটওয়ারী এন্ড সন্স, মো. শাহিন হাওলাদার, আনোয়ার হোসেন(২), মো. সুজন ইরেকট্রনিস, মো. জসিম উদ্দিন, পরেশ দাস, অসীম দাস, শ্যামল দাসসহ ১৬টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ও দুটি বসত ঘর পুড়ে গেছে।

আগুন নেভাতে গিয়ে আশরাফুল ইসলাম, আব্দুল হান্নাসহ ৮ জন আহত হয়েছে। তারা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।
সভাপতি আরও জানান, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো গ্যাস, পেট্রোল, পার্স, বস্ত্রসহ মুদি ও হোটেলের।

এতে ব্যবসায়ীদের প্রায় দুই কোটি টাকা ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। ব্যাংক বা সরকার ঋণ-অনুদান না দিলে ব্যবসায়ীরা দাঁড়াতে পারবে না।

লালমোহন থানার ওসি মীর খায়রুল কবির ঘটনার সত্য স্বীকার করে বলেন, ক্ষয়-ক্ষতির হিসাব করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন.......

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 51
    Shares