সংঘবদ্ধ অপরাধ

সংঘবদ্ধ অপরাধ : গোটা বিশ্বে সন্ত্রাসীদের দৌরাত্ম্য বেড়েছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কাছে সন্ত্রাসবাদই বর্তমানে অন্যতম সমস্যা হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে। ধর্মকে পুঁজি করে গড়ে ওঠা জঙ্গিগোষ্ঠী এবং অন্যান্য সন্ত্রাসী চক্রের নাশকতা স্বভাবতই বিশ্ববাসীর শান্তি বিনষ্টের প্রধান কারণ। বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে প্রতিনিয়ত টিকে থাকার লড়াইয়ের মধ্যে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসী চক্র মাথাচাড়া দিয়ে ওঠায় তা বিশ্ববাসীর জন্য ভয়াবহতা ডেকে এনেছে। আর বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে ধর্মীয় জঙ্গিবাদ বা সন্ত্রাসবাদ যে কত ভয়াবহ তা দেশবাসী এবং বিশ্ববাসীও প্রত্যক্ষ করছে দীর্ঘদিন ধরে। অস্বীকারের উপায় নেই, এসব গোষ্ঠীর রয়েছে আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠীর সমর্থন ও অর্থপ্রাপ্তির যোগসূত্র। আরো উদ্বেগের যে, এসব অপরাধী বা সন্ত্রাসী নিজস্ব ভৌগোলিক সীমানা ছাড়িয়ে বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থেকে তাদের কার্যকলাপ চালাচ্ছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে ও রাষ্ট্রের শীর্ষ ব্যক্তিদের আলাপ-আলোচনায় বিষয়টিকে অধিক গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করা হচ্ছে।
ভদ্রবেশী অপরাধের ক্ষেত্রে বৈধ কর্মচারীরা অবৈধ কর্মকান্ডের মাধ্যমে সুবিধা অর্জন করে। যেমন- ব্যাংকের একজন ক্যাশিয়ার ব্যাংকের একজন বৈধ কর্মচারী হিসেবে তহবিল জালিয়াতির সাথে যুক্ত হতে পারে না। অপরদিকে, সংঘবদ্ধ অপরাধের ক্ষেত্রে অবৈধ সংগঠনগুলোই অবৈধ কাজের সাথে যুক্ত থাকে। যেমন- চোরাচালান, মাদকদ্রব্যের ব্যবসা, পতিতাবৃত্তি, দুর্নীতি, অর্থনৈতিক লাভের জন্য ভয় দেখানো প্রভৃতি।
লেখক : এ জেড এম মাইনুল ইসলাম, সম্পাদক ও প্রকাশক, ক্রাইম প্রতিদিন, সভাপতি, অপরাধ মুক্ত বাংলাদেশ চাই।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন