Home / আন্তর্জাতিক / সৌদিতে শুরু হয়েছে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

সৌদিতে শুরু হয়েছে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী

ক্রাইম প্রতিদিন, আর্ন্তজাতিক ডেস্ক, মো: ইসমত দ্দোহা : ৩৫ বছর দীর্ঘ নিষেধাজ্ঞার পর গত ১৫ই জানুয়ারী ২০১৮ তারিখে আবারও শুরু হলো সৌদী আরবে চলচ্চিত্র প্রদর্শনী। একটি অস্থায়ী প্রেক্ষাগৃহে শিশুদের আনিমেশন ছবি দেখানো হয়। আগামী মার্চে সৌদী আরবে প্রথম স্থায়ী প্রেক্ষাগৃহ উদ্বোধন করা হবে। নিষেধাঙা উঠে যাওয়ায় অনেকেই স্ত্রী ছেলে মেয়ে সহ পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখতে আসেন। বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিও ও সংবাদে দেখা গেল সৌদী নারী পুরুষের উচ্ছাস যেন এক দম বদ্ধ পরিবেশ থেকে তারা একটু স্বস্তির ন্বিঃশ্বাস ফেললো। অনেক দেরিতে হলেও সৌদী আরবে অনেক কিছু ঘটতে যাচ্ছে। আপাতত সপ্তাহান্তে ছবি দেখানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ছবি প্রদর্শনী ছাড়াও বেশ কিছু ক্ষেত্রে সংস্কার মূলক কর্মসূচি বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। উল্লেখযোগ্য এরই মধ্যে ঘরোয়া কনসার্ট, ফুটবল মাঠে নারীর উপস্থিতি, কৌতুক অনুষ্ঠান ও নারীদের গাড়ীচালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে কতৃপক্ষ অস্থায়ী স্থাপনায় চলচ্চিত্র প্রদর্শন করেছে। সৌদির জেদ্দা শহরে একটি সাংস্কৃতিক হলে প্রজেক্টর ও লাল গালিচা বসিয়ে প্রেক্ষাগৃহ তৈরী করা হয়েছে। সপ্তাহব্যাপী এ ছবির প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে “সিনেমা ৭০” নামের একটি প্রতিষ্ঠান। গত ১ লা ডিসেম্বর চলচ্চিত্র প্রদর্শনে নিষেধাঙ্গা প্রত্যাহারের পর এ প্রদর্শনীর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ৮০-র দশকে ইসলামী চিন্তাবিদদের চাপের মুখে সৌদি সরকার চলচ্চিত্র প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন।

৩২ বছরের যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে দেশটিতে অনেক সংস্কার মূলক কাজ করে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় চলচ্চিত্র প্রদর্শনী শুরু হলো। প্রতি বছর প্রতিবেশী দেশ গুলোতে আনন্দ ভ্রমনে বহু সেীদি নাগরিক চলে যায়। বহু সৌদি রিয়াল এই অর্থ ব্যয় ঠেকাতেই সরকারের এ সংস্কার উদ্যোগ। ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে ৩০০ সিনেমা হল তৈরি করতে চায় সরকার। এ সিনেমা হলে ২০০ স্কিন বসানো হবে। এতে ২ হাজার ৪০০ কোটি ডলারের (৯০ বিলিয়ন রিয়াল) ব্যবসার সঙ্গে সঙ্গে ৩০ হাজার লোকের স্থায়ী চাকরির ব্যবস্থা হবে। রয়র্টাস ও সাপ্তাহিক একতার সূত্র অবলম্বনে।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 25
    Shares