Home / সারাদেশ / স্বামী পরিত্যক্ত প্রতিবন্ধী রহিমার মানবাতর জীবন যাপন

স্বামী পরিত্যক্ত প্রতিবন্ধী রহিমার মানবাতর জীবন যাপন

ক্রাইম প্রতিদিন হেলাল উদ্দীন সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরা এক অসহায় রহিমা, দু’চোখে পুঞ্জিভূত হয়ে আছে বেদনার মেঘ, তার একটায় আর্তি আমার একটি প্রতিবন্ধী অথবা স্বামী পরিত্যাক্ত কার্ড পেলে কষ্টটা একটু কম হত।

অশ্রুসিক্ত হয়ে জানালেন সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার ১নং ধানদিয়া ইউনিয়নের পাঁচপাড়া গ্রামের মৃত আকামত সরদারের কন্যা রহিমা খাতুন(৩৮)।

জন্মের পর সে তার পিতাকে দেখিনী। মাতা জরিনা বেগমের কাছে মানুষ। মাতা জরিনা বেগমের মৃত্যুর পর বিভিন্ন জায়গায় চেয়ে চিন্তে খেয়ে না খেঁয়ে বেঁচে আছে। এখান থেকে ১০ বছর আগে এলাকার লোকজন থেকে বিয়ে দেয়। শারিরিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় কয়েক দিন পর তার স্বামী ফেলে রেখে চলে যায়।

রহিমা খাতুন জানায়- আমার রক্তের সম্পর্কের কেউ এ দূনিয়াতে নেই। একটি কার্ডের জন্য চেয়ারম্যান, মেম্বরকে অনেকবার বলেছি কিন্তু কেও কার্ড দেয়নি। আমার কার্ডের জন্য বলে দেওয়ার মত কেউ নেই। আমি আগের মত অত চলতে পারিনা।

এ ব্যাপারে ১নং ধানদিয়া ইউ.পি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলমের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান- আসলে রহিমা খাতুন কার্ড পাওয়ার যোগ্য কার্ড হাতে না থাকায় দিতে পারছি না। আগামীতে কার্ড আসলে তাকে অবশ্যই দেওয়ার চেষ্টা করবো।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন
  • 13
    Shares