April 20, 2019

সুপ্রিম কোর্টের আদেশ বাস্তবায়নের দাবিতে ৯টি জেলায় অবস্থান ধর্মঘট

ক্রাইম প্রতিদিন, ডেস্ক : আজ (রবিবার) বেলা ১০টায় ৯(নয়)টি জেলার সিভিল সার্জন অফিসের সামনে অবস্থান ধর্মঘট করেন ২০১২-১৩ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ৩য়, ৪র্থ শ্রেণির বিভিন্ন পদে কর্মচারী নিয়োগ প্রত্যাশীরা। ক্রাইম প্রতিদিনের নোয়াখালী, নারায়নগঞ্জ, ময়মনসিংহ, ফরিদপুর, নওগাঁ, যশোর, নড়াইল, সাতক্ষীরা ও বরিশাল প্রতিনিধিদের পাঠানো নিউজের আলোকে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছেন হেলাল উদ্দীন।

২০১২ সালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অধীনে ৯(নয়)টি জেলায় ( নোয়াখালী, নারায়নগঞ্জ, ময়মনসিংহ, ফরিদপুর, নওগাঁ, যশোর, নড়াইল, সাতক্ষীরা, বরিশাল) ৯১১টি পদে নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়। ২০১৩ সালের ২৬ এপ্রিল লিখিত পরীক্ষা এবং ১৭ আগস্ট মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় ৯টি জেলায় নোয়াখালী, নারায়নগঞ্জ, ময়মনসিংহ, ফরিদপুর, নওগাঁ, নড়াইল, যশোর, সাতক্ষীরা ও বরিশাল জেলায় ফলাফল ঘোষণা স্থগিত হয়ে যায়। ৯টি জেলায় ৯১১টি শুন্যপদে চাকরি প্রত্যাশীরা হাইকোর্টে রিট করে যার পিটিশন নং-৪৭৪৭/১৪ তারিখ ২৬/০৪/১৫। যার বিরুদ্ধে সরকার পক্ষ হতে আপিল করা হয় যার নং- ৫৩৯/১৭ কিন্তু আপিল মামলাটি ০২/০১/১৮ তারিখে খারিজ হয়ে বর্ণিত রিট মামলা ২৬/৪/১৫ তারিখের রায় বহাল থাকে। সরকার কর্তৃক পরবর্তীতে ৫৩৯/১৭ রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আপিলের ডিভিশনে সিভিল রিভিউ পিটিশন করেন যার নং- ১৮০/১৮। উক্ত রিভিউ মামলায় ২১/০৫/১৮ তারিখের রায়ে আপিল মামলার রায় বহাল থাকে।

অথচ ৬০কার্য দিবস অতিক্রয় করছে অনেক অাগে, কিন্তু স্বাস্থ্য অধিদপ্তর একটি কুচিকরি মহল মহামান্য অাপীল বিভাগ অাদেশ বাস্তায়বন করছে না, এমতাবস্থায় চাকুরী প্রত্যাশী বেকার যুবকরা অবস্থান ধর্মঘট করতে বাধ্য হয়েছে।

তাদের দাবি স্বাস্থ্য অধিদপ্তর একটি কুচিকরি মহল মহামান্য অাপীল বিভাগ অাদেশ বাস্তায়বন করছে না, যদি এই অাদেশ দ্রুত সময়ের মধ্যে বাস্তায়বন না করা হয় তাহলে অামরা অারো কঠোর অাদোলনে যেতে বাধ্য হব। পরে তারা প্রধানমনন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন যাদের ফলাফলে চাকুরি হয়েছে তারা তাদের চাকুরি ফিরে পাক এটাই আমাদের চাওয়া।